বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের মধ্যে ভাতৃত্বের বন্ধন সুদৃঢ় করতে চান রাজ্য সরকার

 

বাংলাদেশ ও ভারতের ত্রিপুরার জনগণের মধ্যে ভাতৃত্বের বন্ধন আরো সুদৃঢ় করতে চান রাজ্য সরকার এবং রাজনৈতিক নেতারা। তবে তাদের অভিযোগ, দু’ প্রতিবেশী দেশের মানুষের বন্ধন নষ্ট করতে সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী চক্রের সাথে সক্রিয় আন্তর্জাতিক চক্র। এজন্যে সজাগ থাকার আহবানও জানিয়েছেন তারা।

উত্তর পূর্ব ভারতের বাঙালী অধ্যুষিত রাজ্য ত্রিপুরা। ভৌগলিক কারণে বাংলাদেশের সাথে রয়েছে বিস্তির্ণ সীমান্ত এলাকা।  একই ভাষা, একই সংস্কৃতির কারনে  প্রতিবেশী এই দু’ দেশের জনগনের মধ্যে গড়ে উঠেছে হৃদ্যতার সম্পর্ক। ভাতৃত্বের এই বন্ধন আরো সুদৃঢ় করতে চায় ত্রিপুরার বাঙালিরা। বাংলাদেশের ইতিহাস, সংস্কৃতি, ঐতিহ্যকে এখনো লালন করেন তারা। দু’ দেশের আত্মিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরে এখনো আবেগাপ্লুত হয়ে উঠেন অনেকেই।

বাংলাদেশ ও ত্রিপুরার জনগণের মধ্যে যে ভাতৃত্বের বন্ধন গড়ে উঠেছে মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী তা ধ্বংসের চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ করেছেন রাজ্যের রাজনৈতিক নেতারা। সব প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় করার তাগিদ দিয়েছেন তারা।

 

একই সুরে কথা বলেছেন, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী। অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে প্রগতিশীল দেশপ্রেমিক নাগরিকদের সম্মিলিত ভাবে  প্রতিরোধ গড়ে তোলারও আহবান জানিয়েছেন তিনি।

 

Leave a Reply