আজ ৬ই ডিসেম্বর, স্বৈরাচার পতন দিবস

আজ ৬ই ডিসেম্বর, স্বৈরাচার পতন দিবস। ১৯৯০ সালের এই দিনে ছাত্র জনতার সম্মিলিত আন্দোলনে পতন ঘটে স্বৈরাচরাী সরকারের। ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন সে সময়ের স্বৈরশাসক জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। মুক্তি পায় গণতন্ত্র। সেই গনতন্ত্রের ধারা যেন অব্যাহত রাখা যায় সে লক্ষ্যে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন, ওই সময়ের সর্বদলীয় ছাত্রঐক্যেও নেতারা।

১৯৯০ সালের এই দিনে ছাত্র জনতার তীব্র আন্দোলন সংগ্রামের মুখে ক্ষমতা থেকে সড়ে দাঁড়ান তৎকালীন রাষ্ট্রপ্রধান জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।  বিচারপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি নিয়োগ করে তার হাতে তুলে দেয়া হয় রাষ্ট্রক্ষমতা।

কিন্তু খুব সহজে এ সমাধান পায়নি জনগন। ১৯৮২ সালের মার্চ মাসে এরশাদ ক্ষমতা দখলের পর একের পর এক গণবিরোধী ধারা প্রবর্তন করে। রাজনৈতিক নেতারাও ব্যাপক নিপীড়নের শিকার হন। ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল হয় দেশ। স্বৈরাচারের লেলিয়ে দেয়া পেটুয়া বাহিনীর হাতে শহীদ হন নূর হোসেন, ডা. মিলনসহ অনেকে। প্রতিবাদে এরশাদ হঠানোর আন্দোলনে নেমে পড়ে দেশবাসী।

১৯৯০ সালের ১০ অক্টোবর সচিবালয় ঘেরাও কর্মসূচীর মাধ্যমে ঐক্যবদ্ধ গণ-আন্দোলনের সূচনা হয়। অবশেষে ৫ই ডিসেম্বর পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে দীর্ঘ ৯ বছরের শাসনের অবসান ঘটে ৬ ডিসেম্বর।

গনতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখতে ঐক্যবদ্ধ থাকার বিকল্প নেই বলে মত তাদের।

Leave a Reply