ঝিনাইদহে ফুলের বেচাকেনা জমজমাট হয়ে উঠেছে

ফাগুন উৎসব, ভালোবাসা দিবস, স্বরস্বতী পূজা ও একুশে ফেব্র“য়ারি উপলক্ষ্যে ঝিনাইদহে ফুলের বেচাকেনা জমজমাট হয়ে উঠেছে। বাড়ির গৃহিনীরাও রাত দিন ব্যস্ত ফুলের মালা গাঁথা আর ফুল পরিচর্যার কাজে। ফুল চাষীরা আশা করছেন, এবছর ফুল উৎপাদন, চাহিদা ও দাম সবই বেশি হবে। শুধুমাত্র ঝিনাইদহ জেলা থেকে চলতি মাসেই ৫ থেকে ৬ কোটি টাকার ফুল বিক্রি হবে।

মাঠ জুড়ে গাদা ফুল; যেন হলুদের গালিচা। সারাবছরই ফুলের উৎপাদন হলেও শীত মৌসুমে তা আরো বাড়ে। বিয়ে-জন্মদিনসহ নানা উৎসবে ফুলের চাহিদাও বেশি। লাভ বেশি হওয়ায় ঝিনাইদহ জেলায় এবার প্রায় ৬শ’একর জমির বেশির ভাগেই গাদা ফুলের চাষ হয়েছে। এরমধ্যে শুধু কালীগঞ্জ উপজেলায় ফুল চাষ হয়েছে ৩৩৮ একর জমিতে। সামনে ফাগুন উৎসব, ভালোবাসা দিবসসহ নানান উৎসব থাকায় ব্যস্ততা বেড়ে গেছে চাষীদের।

প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা খরচ হয় ফুল চাষে। আর খরচ বাদে লাভ হয় প্রায় এক লাখ টাকা। প্রতিদিন এখান থেকে বিপুল পরিমান ফুল ঢাকার শাহবাগ, চট্টগ্রাম ও সিলেট সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চলে যায়।

গত বছরের তুলনায় এবার শুধু চলতি মৌসুমেই ৫ থেকে ৬ কোটি টাকার ফুল বিক্রি হওয়ার আশার কথা বললেন কৃষি কর্মকর্তা।

ফুল চাষে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা ও সরকারিভাবে ফুলের বাজার সৃষ্টি করতে পারলে আগামীতে ফুল চাষ আরও দ্বিগুণ বাড়বে। কৃষকরাও হবেন লাভবান। এমনটিই আশা করছেন এ অঞ্চলের চাষীরা।

Leave a Reply