কাসেম আলীর আপিল শুনানি বুধবার পর্যন্ত মুলতবি

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর আপিল শুনানি বুধবার পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে। প্রথম দিনের শুনানী শেষে আসামীপক্ষের আইনজীবী বলেন, তারা আশা করছেন মীর কাসেম আলীকে মৃত্যুদন্ড থেকে রেহাই দেয়া হবে। তবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, মৃত্যুদন্ড পরিবর্তনে সুযোগ নেই। এদিকে আন্তর্জাতিক আপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর মো. আলীকে মামলার কার্যক্রম থেকে প্রত্যাহার করেছেন চিফ প্রসিকিউটর।

m kashemএকাত্তরে মানবতা বিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত মীর কাশেম আলীর আপিল শুনানি মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে শুরু হয়। এই যুদ্ধাপরাধীর  বিরুদ্ধে আনা ১০ অভিযোগ ও ১০ সাক্ষীর জেরা এবং জবানবন্দি আদালতে পড়ে শোনানো হয়। আপিলে তার খালাসের পক্ষে ১৮১টি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। শুনানি বুধবার পর্যন্ত মুলতবি করেন আদালত।

২০১৪ সালের ৩০শে নভেম্বর ট্রাইব্যুনালের দেওয়া মৃত্যুদণ্ড থেকে বেকসুর খালাস চেয়ে আপিল করেন মীর কাসেমের আইনজীবীরা। গেল ২রা ফেব্রুয়ারি শুনানির দিন ধার্য থাকলেও আসামী পক্ষের সময় আবেদনের প্রেক্ষিতে তা পেছানো হয়। অভিযুক্ত মীর কাশেম আলী মৃত্যুদন্ড থেকে মুক্তি পাবেন বলে প্রত্যাশা আসামী পক্ষের। তবে রাষ্ট্রপক্ষের দাবি, মৃত্যুদন্ডই বহাল থাকবে।

এদিকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর মো. আলীকে ট্রাইব্যুনালের মামলায় অংশগ্রহন না করতে নির্দেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটর। চিফ প্রসিকিউটরের সাক্ষরযুক্ত এক অফিস আদেশে তাকে প্রত্যাহার করা হয়। তবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, ঘটনাটির তদন্ত হওয়া উচিত।

Leave a Reply