মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ড বহাল

মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে রিভিউ আবেদনের পূর্ণাঙ্গ রায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে পৌঁছেছে। মঙ্গলবার বিকেলে আপিল বিভাগ থেকে ২৯ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পরপরই তা পাঠানো হয় ট্রাইব্যুনালে। লাল কাপড়ে মোড়ানো রায়ের কপি গ্রহণ করেন ট্রাইব্যুনালের সহকারি রেজিষ্টার শহীদুল আলম। এই রায়ের কপি স্বরাষ্ট্র, আইন মন্ত্রণালয়, কারা কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে। পরে কারা কর্তৃপক্ষ মৃত্যুপরোয়ানা জারি করবে।

মানবতাবিরোধী অপরাধী মীর কাসিম আলীর মৃত্যদন্ডের চুড়ান্ত রায় রিভিউ আপিল  মঙ্গলবার সকালে খারিজ করে আপিল বিভাগ। মঙ্গলবার বিকেলে রিভিউয়ের পুর্নাঙ্গ রায় প্রকাশ করে রায়ের কপি পাঠানো হয় আন্তর্জাতিক মানবতাবিরোধী ট্রাইবুনালে।

একাত্তরে চট্টগ্রামের আল বদর কমান্ডার মীর কাসেম আলীর নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধা, তাদের সহযোগীদের ধরে নিয়ে চালানো হত অমানুষিক নির্যাতন। আর ডালিম হোটেলে কিশোর মুক্তিযোদ্ধা জসিমকে হত্যার দায়ে মীর কাসেমকে ট্রাইব্যুনালের দেয়া ফাঁসির রায় বহাল রাখেন আপিল বিভাগ।

এবার রিভিউ আবেদন খারিজ করার মীর কাসেমের মৃত্যুদন্ড বহাল থাকলো। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেন।

নিয়ম অনুযায়ী একাত্তরের বদর নেতা কাসেম এখন কেবল রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাইতে পারবেন। এর নিষ্পত্তি হলেই ফাঁসি কার্যকরে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

মীর কাসেম আলীর রিভিউ আবেদন খরিজ হওয়ায় জতির প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন অ্যাটর্নি জেনারেল।

আন্তর্জাতিক মানবতাবিরোধী ট্রাইবুনালে সরকারের মন্ত্রণালয় ছাড়াও কারাকর্তৃপক্ষের কাছে রিভিউ খারিজের রায় পাঠাবে। কারাকর্তৃপক্ষ মৃত্যু পরোয়ানা জারি করার পর সরকারের নির্ধারিত দিনে মহান মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রামের ডালিম হোটেলে স্বাধীনতাকামীদের হত্যাযজ্ঞের হোতা মীর কাসেমের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করবে।

্হনংঢ়;

Leave a Reply