খাদ্য সামগ্রীর দর-দাম না বাড়লেও রমজানে বাড়তে পারে আশঙ্কা ব্যবসায়ীদের

রোজার আগেই রাজধানীর বাজারগুলো সেজেছে বর্ণিল সাজে। নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর দর-দাম গেলো সপ্তাহের তুলনায় খুব একটা না বাড়লেও, রমজানে বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা। তাই বাজার তদারকির দাবি জানিয়েছেন ক্রেতারা। আরো জানাচ্ছেন রিয়াজ সুমন।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার, মহাখালী কাঁচা বাজারসহ বেশিরভাগ বাজারেই দেখা গেছে রমজানকে ঘিরে ব্যবসায়ীদের আগাম প্রস্তুতি। রোজায় সবচে প্রয়োজনীয় ছোলা-বুট, বেসন, চিড়া-মুড়ি, চিনি, পেঁয়াজ, আলু, টমেটো, বেগুন, শসাসহ বিভিন্ন খাদ্য পণ্যের পসরা সাজিয়েছেন তারা।

এসব পণ্যের মধ্যে কোনটার দাম আগের মত থাকলেও, রোজার নিত্য অনুষঙ্গ ছোলা-বুট, বেগুনসহ বেশকিছু পন্যের দাম এরিমধ্যে ৫ থেকে ১০ টাকা বেড়েছে।

বিক্রেতারাও বলছেন, রোজায় কিছু কিছু পণ্যের দাম বাড়তে পারে। বাজারে মাছের দাম কমেছে কিছুটা। তবে বেড়ে যাবার আশংকা ক্রেতাদের।

এদিকে, গরু, মহিষ ও খাসীর মাংসের মূল্য নির্ধারন করে দিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। রমজানে সেই নির্দেশনার ব্যত্যয় ঘটবে না বলেই জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

তারা আরও বলছেন, সরবরাহসহ আনুসঙ্গিক বিষয় ঠিকঠাক থাকলে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল থাকবে।

Leave a Reply