হাসনাত করিমের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন

গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা মামলায় নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত করিমকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। এ’ মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাসনাতকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করা হয়েছে। আর সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডীয় নাগরিক তাহমিদ হাসিব খানকে দ্বিতীয় দফায় আরও ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পহেলা জুলাই গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার পর থেকেই সন্দেহভাজন ছিলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজা করিম।

ঘটনার সময় জঙ্গিদের সাথে তার কথপোকথন, রেস্তোরাঁর ভেতরে ঘুরে বেড়ানো আর কমান্ডো অভিযানের আগ মুহুর্তে বেরিয়ে আসা নিয়ে ঘটনার পর থেকেই চলছিল আলোচনা-সমালোচনা।

কমান্ডো অভিযানে নিহত জঙ্গি নিবরাস ইসলামের সাথে হাসনাতের পূর্ব পরিচয়ের বিষয়টি নিয়েও রয়েছে নানামুখী আলোচনা।

এমন প্রেক্ষাপটে ৩ আগস্ট রাতে সন্দেহভাজন হিসেবে হাসনাতকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

পরে ৪ আগস্ট জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৮ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয় তাকে।

প্রথম দফায় রিমান্ড শেষে গুলশান হামলা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার আদালতে পাঠানো হয় তাকে।

৩ আগস্ট কানাডার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তাহমিদ হাসিব খানকেও গুলশান হামলার ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়।

ঘটনার সময় হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় তার অবস্থান, জঙ্গিদের সাথে কথপোকথন, ঘুরে বেড়ানো নিয়ে আলোচিত-সমালোচিত তিনি।

হাসনাতের সাথে তাকেও ৮ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

সন্দেহভাজন হিসেবেই দ্বিতীয় দফায় তার আরও ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছে পুলিশ।

Leave a Reply