বইমেলায় শুক্রবার সকাল ছিলো শিশু-কিশোরদের জন্য

No video URL found.

একুশে বইমেলায় শুক্রবার সকাল ছিলো শিশু-কিশোরদের জন্য। কয়েক বছরের ধারাবাহিকতায় এবারো সাপ্তাহিক ছুটির দিনের প্রথম অংশকে ‘শিশু প্রহর’ হিসেবে ঘোষণা করেছে বাংলা একাডেমি। মেলা শুরুর পর প্রথম শুক্রবার প্রিয় সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে বইমেলায় আসেন অনেক অভিভাবক। ক্ষুদে পাঠকের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠে বইমেলা প্রাঙ্গন।

এভাবেই মা-বাবার হাত ধরে একুশে বইমেলায় এসেছে শিশু। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গন আর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ক্ষুদে পাঠকের আনাগোনা যেন বাঙালীর ঐতিহ্যের সঙ্গে মেলবন্ধন গড়বার প্রত্যয়ে।

অন্যান্য বছরের মতো এবারো সাপ্তাহিক ছুটির দিনে সকালকে ঘোষণা করা হয়েছে ‘শিশু প্রহর’ হিসেবে’। সেকারণে অন্য দিন শুক্রবার <ংঃৎড়হম>দুপুর দুইটা থেকে মেলা শুরু হলেও শুক্রবার শুরু হয় সকাল ১১টা থেকে।

অভিভাবকরা বললেন, দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য আর বইয়ের সাথে সন্তানদের পরিচয় করিয়ে দিতেই মেলায় নিয়ে আসা।

নানা রংয়ের, নানা বর্ণের নতুন নতুন গল্প, ছড়ার বই দেখে খুশি ক্ষুদে পাঠকেরাও। হাজারো বইয়ের ভীড়ে পছন্দের বই খুঁজে নিচ্ছে তারা।

এবারো মেলায় রয়েছে আলাদা শিশু কর্নার। স্টলগুলোতে আছে শিশুতোষ বাহারি বইয়ের সমাহার।

বইমেলায় গুটি গুটি পায়ে আজ হাঁটছে যেসব শিশু, একদিন তারাই হবে বাঙালীর ইতিহাস-ঐতিহ্যের ধারক। সবার প্রত্যাশা, তাদের মেধা-মনন দেশকে নিয়ে যাবে অনন্য উচ্চতায়।

 

Leave a Reply