জিহাদের মৃত্যুর মামলার চার জনের ১০ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড

রাজধানীর শাহজাহানপুরে রেলওয়ের পরিত্যক্ত নলকূলের পাইপে পড়ে চার বছরের শিশু জিহাদের মৃত্যুর মামলার চার জনের ১০ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। খালাস দেয়া হয়েছে দুই আসামীকে। দুপুরে ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান দুপুরে রায় দেন।

রাজধানীর শাহজাহানপুরে রেলওয়ের পরিত্যক্ত নলকূপের পাইপে পড়ে শিশু জিহাদের মৃত্যুর ঘটনায় মামলা করেন তার বাবা। অবহেলাজনিত কারণে মৃত্যুর অভিযোগ আনা হয়। ২০১৬ সালের ৪ অক্টোবর শুরু হয় বিচার কাজ।

রোববার আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষনা করেন, ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ মো. আখতারুজ্জামান। রেলওয়ের উপসহকারী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম, কমলাপুর রেলওয়ের সহকারী প্রকৌশলী নাসির উদ্দিন, প্রকৌশলী আবু আহমেদ শাকি ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স এসআর হাউসের মালিক মো. শফিকুল ইসলাম ওরফে সালামকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদান্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাদেরকে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো দুই বছর করে কারাদন্ড- দেয়া হয়েছে।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় রেলওয়ের সহকারী প্রকৌশলী দিপক কুমার ভৌমিক ও সাইফুল ইসলামকে খালাস দেন বিচারক।

রায়ে সন্তোষ জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা। তবে দুজন খালাস পাওয়ায় উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছেন শিশু জিহাদের বাবা।

২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর শাহজাহানপুর রেলওয়ে কলোনিতে পরিত্যক্ত নলকূপের পাইপে পড়ে যায় চার বছরের জিহাদ। প্রায় ২৩ ঘণ্টা অভিযানে পর তাকে না পেয়ে অভিযান স্থগিতের ঘোষণা দেয় ফায়ার সার্ভিস। এর কয়েক মিনিটের মধ্যে কয়েকজন তরুণের তৈরি করা যন্ত্রে পাইপের নিচ থেকে উঠে আসে অচেতন জিহাদ। হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Leave a Reply