রাজবাড়ীতে রেলের বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ

রাজবাড়ীতে রেলের বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। নির্ধারিত ভাড়ার ৩০ শতাংশ পর্যন্ত বেশি নেয়ার ফলে টিকেট বিক্রেতাদের সাথে হরহামেশাই যাত্রীদের বাকবিতন্ডা হচ্ছে। যাত্রীদের অভিযোগ, ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায়ের ফলে স্বল্প আয়ের মানুষদের চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে।

রাজবাড়ী রেলষ্টেশনে টিকেট কাউন্টারে ভাড়া নিয়ে যাত্রী আর রেল কর্তৃপক্ষের বাকবিতন্ডা এখন প্রতিদিনের ঘটনা।

যাত্রীদের অভিযোগ,  ২০শে ফেব্র“য়ারি সরকার ৭ থেকে ৯ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর ঘোষনা দিলেও এখানে তা মানা হচ্চেনা। বরং এই রেলস্টেশনে ৩০ শতাংশ হারে ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। রাজবাড়ী রেলষ্টেশন থেকে ফরিদপুর রেলস্টেশনে আগের ভাড়া  ৩৫ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৪৫ টাকা। একই ষ্টেশন থেকে দৌলতদিয়া আন্তনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া ৩৭ টাকা থেকে হয়েছে ৪৭ টাকা। শুধু তাই নয়, রসিদের উপর হাতে লিখে আদায় করা হচ্ছে এই অতিরিক্ত ভাড়া।

ভাড়া বাড়ানোর পর গেলো দুই মাসে এ রুটে কমতে শুরু করে যাত্রীও।

রেল কর্মীরা বলছেন, ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে রেলওয়ের রাজশাহীর আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে, তাই এব্যাপারে তাদের করার কিছুই নেই।

রাজবাড়ীর ষ্টেশন মাষ্টার ভাড়া বাড়ার বিষয়টি স্বীকার করে জানান, দূরপাল্লার তুলনায় স্বল্প দূরত্বের ভাড়া বেশী বেড়েছে।

সবদিক বিবেচনা করে দ্রুত সময়ের মধ্যে ভাড়া কমানোর দাবি যাত্রীদের।

Leave a Reply