লাভজনক হওয়ায় হাঁস পালনে আগ্রহী চুয়াডাঙ্গার খামারীরা

লাভজনক হওয়ায় হাঁস পালনে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন চুয়াডাঙ্গার খামারীরা। হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন থেকে শুরু করে বাজারজাত করা পর্যন্ত সব ধাপেই রয়েছে ভাল উপার্জনের সুযোগ। জেলায় গড়ে উঠেছে তিনশ’র মতো হাঁসের খামার। এতে কর্মসংস্থান হয়েছে অনেক মানুষের।

হাঁস পালন ও হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন করে চুয়াডাঙ্গার অনেক আত্মপ্রত্যয়ী তরুণ পেয়েছেন সফলতা। রোগ বালাই কম ও তুলনামুলক লাভজনক হওয়ায় এ নিয়ে আগ্রহ বেড়েছে স্থানীয়দের। গড়ে তুলেছেন হাঁসের খামার। জেলার সফল হাঁস খামারীদের একজন জাকির হোসেন। তিনি জানান, কয়েক বছরের মধ্যেই ১২৬টি হাঁস নিয়ে শুরু করা খামারে এখন প্রতিদিন উৎপাদন হচ্ছে প্রায় ৯ হাজার হাঁসের বাচ্চা।

১ দিন বয়সের হাঁসের বাচ্চা বিক্রি হয় ২৪ থেকে ২৫ টাকায়। হাঁসের বাচ্চাগুলো বিভিন্ন জায়গার খামারীদের কাছে বিক্রির জন্য নিয়ে যান হকাররা।

হাঁসের বাচ্চাগুলো বড় করতে দরকার নিয়মিত যতœ। এ কারণে খামারগুলো এলাকার অনেক মানুষের কাজের সুযোগ করে দিয়েছে।

হাঁসের খামার গড়ে ভাল উপার্জন করছেন খামারীরা। তৈরি হয়েছে বেকার তরুণদের আত্মকর্মসংস্থানের পথ।

Leave a Reply