জয়পুরহাটে চেয়ারম্যান আজাদ হত্যার মূল আসামী ধরা না পড়ায় আতঙ্কে নিহতের স্বজনরা

জয়পুরহাটে ইউপি চেয়ারম্যান আজাদ হত্যার ঘটনায় মূল আসামী যুবলীগ নেতা মুন্না একমাস পরও ধরা না পড়ায় আতঙ্কে রয়েছেন নিহতের স্বজনরা। তাদের অভিযোগ, এই মামলায় কয়েকজন চুনোপুটি ধরা পড়লেও হত্যার পরিকল্পনাকারী মূল আসামীরা রয়েছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। তবে পুলিশের দাবি, জড়িত কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।

গেল ৪ জুন রাতে বাড়ি ফেরার পথে দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হন জয়পুরহাটের ভাদসা ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এ কে আজাদ। তাকে বাঁচাতে পথচারী নয়ন কুমার এগিয়ে এলে দু’জনকেই কুপিয়ে ও গুলি করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে তাদের উদ্ধার করে ঢাকার একটি হাসপাতালে নেয়া হলে ১২ জুন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান চেয়ারম্যান আজাদ।

এ ঘটনায় ৫ জুন নিহতের ভাই এনামুল হক বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা করেন। তবে এখন পর্যন্ত মূল আসামী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুন্না পারভেজ মৃধা ধরা না পড়ায় হতাশ স্বজনরা।

এদিকে মামলাটি সঠিক পথে এগুচ্ছে এবং জড়িতদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানায় পুলিশ।

চেয়ারম্যান আজাদ হত্যার প্রকৃত অপরাধীদের বিচার দেখতে চায় স্বজন ও এলাকাবাসী।

Leave a Reply