রংপুরে শিশুকে পাশুবিক নির্যাতনের পর হত্যার দেড় মাসেও নেই অগ্রগতি

রংপুরের পীরগঞ্জে শিশুকে পাশুবিক নির্যাতনের পর হত্যা করে ঘরের মাটিতে পুঁতে রাখার ঘটনায় দেড় মাসেও কোন অগ্রগতি নেই। হত্যাকাণ্ডে জড়িত একজন গ্রেফতার হলেও সহযোগিরা আজও ধরা-ছোয়ার বাইরে। এদিকে, মামলা তুলে নেয়া জন্যও নিহতের স্বজনদের হুমকি দেয়া হচ্ছে।

গেল ১৭ জুন পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর গ্রামের দুরামিঠিপুর সরকারী প্র্থামিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থী চুমকির মৃতদেহ, ঘরের মেঝে খুঁড়ে উদ্ধার করে পুলিশ। ময়না তদন্তেও জানা যায় কয়েকজন বখাটে তাকে পাশুবিক নির্যাতনের পর হত্যা করে। এতোদিনেও দোষীরা বিচারের আওতায় না আসায় ক্ষোভ জানিয়েছে স্বজনরা।

শিশুটির মৃতদেহ গুম করে রাখার ঘটনায় ঘাতক রিয়াদকে পুলিশ গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদে অন্যান্য সহযোগিদেরও নাম বেরিয়ে আসে। তবে তাদের আজও ধরতে পারেনি পুলিশ। উল্টো ভুক্তোভোগি পরিবারটিকেই মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছে আসামীপক্ষের লোকজন।

অবশ্য পুলিশ বলছে, বাকী আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

তবে শুধু আশ্বাস নয়, দোষীদের দ্রুত বিচারের দাবি ভুক্তভোগি পরিবার ও এলাকাবাসির।

Leave a Reply