ভোলার মনপুরা উপকূলে ব্যাপক হারে বেড়েছে জলদস্যুদের উপদ্রব

ভোলার মনপুরা উপকূলে ব্যাপক হারে বেড়েছে জলদস্যুদের উপদ্রব। কয়েকটি বাহিনীর হাতে জিম্মি হয়ে গেছে এ অঞ্চলের জেলেরা। গেলো একমাসে ২৩ টি ডাকাতির ঘটনায় অপহৃত হয়েছে এলাকার ২৬ জেলে। মৃত্যু হয়েছে একজনের। জলদস্যু আতংকে স্বাভাবিক জীবন-জীবিকা ব্যহত হচ্ছে মৎসজীবিদের।

গেলো একমাস ধরে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ মাছ ধরা পড়ছে ভোলার মনপুরার জেলেদের জালে।

মাছ ধরার পড়ায়, নদীর আশপাশের মৎস্য ঘাটগুলো আড়ৎদার, পাইকার ও জেলেদের হাকডাকে মুখরিত হলেও জলদস্যু কর্তৃক অপহরণ আর ডাকাতি আতংকে রয়েছে মৎসজীবিরা।

মেঘনার মদনপুরা, চর তাজাম্মল, বয়ার চর, চেয়ারম্যানের ঘাট, সন্দিপ, বাসন ভাঙ্গার চর, চর উড়িল, আলেকজেন্ডারসহ বিভিন্ন পয়েন্টে ওৎ পেতে থাকে জলদস্যুরা। ডাকাতির পরিকল্পনা করে হরহামেশাই ঝাপিয়ে পড়ে জেলেদের উপর।

উপকূলের ১৯০ কিলোমিটার জলসীমা এখন স্থানীয় জলদস্যু রুবেল, মহিউদ্দিন, কৃষ্ণ ও আলাউদ্দিন বাহিনীর দখলে রয়েছে বলে জানায় জেলেরা।

এদিকে অপহরণ ও ডাকাতির ঘটনার কথা স্বীকার করে, দস্যু দমনে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানালেন, ভোলার পুলিশ সুপার ও কোস্টগার্ড কর্মকর্তা।

তবে স্বাভাবিক জীবন যাপনে জলদস্যুদের হাত থেকে স্থায়ী মুক্তি চায় উপকূলবাসী।

Leave a Reply