রংপুর ও নাটোরের চামড়া ব্যবসায়িরা লবণ সংকটে দিশেহারা

লবণ সংকটে দিশেহারা রংপুর ও নাটোরের চামড়া ব্যবসায়িরা। ৬শ’ টাকা বস্তার লবণ বিক্রি হচ্ছে ১৪শ’ টাকা দরে। সময়মত চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে না পারলে পচনের আশংকা করছেন তারা। আর বেশি দামে চামড়া কিনে বিপাকে পড়েছেন মৌসুমী ব্যবসায়ীরা।

উত্তরাঞ্চলের অন্যতম বৃহৎ পশুর চামড়ার আড়ত রংপুর নগরীর কামারপাড়া এলাকায়। এরইমধ্যে বিভিন্ন জেলা থেকে আসতে শুরু করেছে কোরবানীর পশুর চামড়া।

কিন্তু, লবণের অভাবে চামড়া সংরক্ষণ করতে পারছেন না ব্যবসায়িরা। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে লবণ, এরপরও চাহিদা অনুযায়ি পাওয়া যাচ্ছে না।

অন্যদিকে, মৌসুমী ব্যবসায়িরা ট্যানারি মালিকদের বেঁধে দেয়া দামের চেয়ে বেশি দরে চামড়া কিনে বিপাকে পড়েছেন।

এদিকে, নাটোরে কোরবানীর পশুর চামড়ার সরবরাহ বেশি হওয়ায় ন্যায্যমূল্য না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন মৌসুমী ব্যবসায়িরা। সেই সঙ্গে লবণের অভাবে চামড়া সংরক্ষণও করা যাচ্ছে না।

লবণের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির কারণে বিপাকে পড়েছেন আড়তদাররাও।

কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিকারী লবণ ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

 

Leave a Reply