শিশুকে জোর করে তুলে ঢাকায় নিয়ে শারীরিক নির্যাতন

কুমিল্লার শিশু বৈশাখীকে জোর করে তুলে ঢাকায় নিয়ে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার প্রতিবেশির বিরুদ্ধে। গেলো চার মাস নিখোঁজ থাকা শিশুটিকে ফেরত দেয়ার পর সে নিজেই এমন অভিযোগ করেছে। এ ঘটনায় প্রতিবেশি স্বপন ও তার স্ত্রীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।

১১ বছর বয়সী বৈশাখী থাকতো কুমিল্লার ক্ষেতাসারে ফুফুর বাসায়। গেলো ৩০ এপ্রিল পাউরুটি কিনতে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেনি সে। একই এলাকার স্বপন ও তার স্ত্রী হালিমা রিক্সায় করে বৈশাখীকে নিয়ে যায় বলে জানায় পাড়ার শিশুরা। তাদের কাছে খোঁজ নেয়া হলে হুমকি দেয়া হয় বৈশাখীর অভিভাবকদের। পরে এলাকাবাসীর চাপে পহেলা আক্টোবর বৈশাখীকে ফিরিয়ে দেয় স্বপন।

বাড়ি ফিরে বৈশাখী জানায়, কাজ করানোর নামে তাকে ঢাকায় নিয়ে যায় স্বপন। সেখানে তার শালিকা রুবির বাসায় রেখে রুবির স্বামী জহির ও স্বপন তাকে শারিরিকভাবে নির্যাতন করে। বাধ্য করে অনৈতিক কাজ করতেও।

বৈশাখীকে ফিরিয়ে দেয়ার পর থেকে স্বপরিবারে পলাতক রয়েছে স্বপন।

এদিকে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় স্বপন, হালিমা, জহির ও রুবির বিরুদ্ধে মামলা করে বৈশাখীর ফুফু।

অভিযুক্তদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

Leave a Reply