সাংসদ লিটন হত্যার জট খোলেনি ১৩ দিনেও, ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে দলীয় নেতাকর্মী এবং স্বজনদের মধ্যে

No video URL found.

গাইবান্ধার সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যার জট খোলেনি ১৩ দিনেও। এতে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে দলীয় নেতাকর্মী এবং স্বজনদের মধ্যে। হত্যায় জড়িত সন্দেহে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হলেও তদন্তের স্বার্থে কিছু বলতে রাজি হয়নি পুলিশ। এদিকে, নাশকতা ও বিস্ফোরক মামলায় সুন্দরগঞ্জের কাপাসিয়া ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারিসহ ৫ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যার পর থেকেই দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে বিচারের দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠে সুন্দরগঞ্জের মানুষ। অপরাধীদের শাস্তির দাবিতে চলে বিক্ষোভ-সমাবেশ।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকটি সংস্থা কাজ করলেও, ১৩ দিনেও খুনিরা চিহ্নিত না হওয়ায় ক্ষোভ-হতাশা বাড়ছে নেতাকর্মী ও স্বজনদের।

পুলিশ বলছে, হত্যাকারীদের গ্রেফতারে সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গায় নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন।

Leave a Reply