ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে উঠা বিভিন্ন ফার্ম থেকে অনেকেই কিনছেন এবারের কোরবানীর গরু

কোরবানীর হাট থেকে গরু না কিনে অনেকই ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে উঠা বিভিন্ন ফার্ম থেকে কিনছেন এবারের কোরবানীর গরু। উচ্চ শিক্ষা শেষ করে মেধাবী তরুনরা গড়ে তুলেছেন এসব খামার, পেয়েছেন সফলতাও। খামার আর গরুর পরিচর্যা দেখে কোরবানির পশু কিনে মানসিকভাবে অনেকটাই নিশ্চিন্ত থাকা যায় বলেই ক্রেতারা হাটে না গিয়ে ছুটছেন এসব খামারে।

হাতীরঝিলে গড়ে উঠা সামারাই ক্যাটেল র্ফামের গরুগুলো কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখেইে বিক্রির জন্য লালন পালন করা হয়েছে।

বিদেশ থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন শেষে নিলয় নিজ উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন এই ফার্মটি। দেশের বিভিন্নস্থান থেকে সংগ্রহ করেছন উন্নত জাতের গরু। শ্রম আর মেধার সমম্বয়ে, দেখতে শুরু করেছেন সাফল্যও।

দেশী গরুর পাশাপাশি তার সংগ্রহে আছে, ভুটান থেকে আনা ভুট্টি আর মিরকাদিমের গরু। বিক্রির পর গরু লালন-পালন এবং ট্রান্সপোর্ট সুবিধাও রয়েছে এই ফার্মে।

মোহাম্মদপুরসহ রাজধানীর বিভিন্নস্থানে রয়েছে এমন অনেক খামার; যেখানে কোন ধরনের রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার না করে সুস্থ সবলভাবে গরু মোটা-তাজা করা হচ্ছে।

এধারা অব্যাহত থাকলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ভারত থেকে গরু আমদানী করতে হবে না বলেও জানান তরুণ খামারীরা।

হাটের ঝক্কি ঝামেলা ছাড়াই, সুস্থ গরু কম দামে কিনতেই ক্রেতারা ছুটছেন এসব ফার্মে।

মেধাবী তরুনরা এই পেশায় আসলে আগামীতে যেমন সংকট হবে না কোরবানীর পশুর, তেমনি স্বাবলম্বি হওয়া সম্ভব বলে মনে করেন এই খামারিরা।

Leave a Reply