মহাবিশ্বে ত্রিশ হাজার বছরের পথ পাড়ি দেয়া যাবে মাত্র ত্রিশ বছরে

মহাবিশ্বে ত্রিশ হাজার বছরে যে পথ পাড়ি দেয়া যায়, তা যেতে সময় লাগবে মাত্র ত্রিশ বছর। পৃথিবী থেকে ৪০ ট্রিলিয়ন কিলোমিটার দূরের ‘আলফা সেঞ্চুরাই সিস্টেমে’ এই যাত্রাপথের কাণ্ডারি হবে হাল্কা ও ক্ষুদ্র আকৃতির নভোযান। বুদ্ধিমান প্রাণীর খোঁজে এই সময়ের এমন মহা আবিস্কারের ঘোষণা দিয়ে তাক লাগালেন সারা জাগানিয়া পদার্থবিদ স্টিফেন হকিং। সব ঠিকঠাক থাকলে দু’ দশকের মধ্যেই ডানা মেলবে এ মহাকাশ যান।

সায়েন্স ফিকশন ছবির স্পেসশিপ এবার বাস্তব হতে যাচ্ছে। ছোট মাপের মহাকাশ যান মহাকাশে পাড়ি দেবে ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন মাইল পথ। খুঁজে দেবে মহাবিশ্বে বুদ্ধিমান প্রাণীর অস্তিত্ব।

অনেকটা নৌকার মতোই শুন্যে ভেসে চলবে এই যান। পার্থক্য এটুকুই, বাতাসের বদলে একে লক্ষ্যে ঠেলে দেবে লেজার লাইট। একশ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ‘ব্রেকথ্রু ইনিশিয়েটিভস’ প্রকল্পের আওয়াত এই মহাকাশ যান নির্মাণ নিয়ে কাজ শুরু করেছেন বিজ্ঞানীরা। বলছেন, ক্যামেরা আর উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা নির্ভর এ মহাকাশ যান আগের যেকোন যানের চেয়ে শক্তিশালি হবে।

বিজ্ঞানীদের ধারণা, ৪০ ট্রিলিয়ন কিলোমিটার দূরের আলফা সেঞ্চুরাই সিস্টেমে পৃথিবীর মতোই প্রাণের নিবাস রয়েছে। আপাতত টার্গেট সেখানে যাওয়াই। তবে এ মহাকাশ যান নির্মাণে প্র্রতিবন্ধকতাও কম নয়।

মহাকাশে বুদ্ধিমান প্রাণীর সন্ধান কিংবা নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেয়ার চেষ্টা চলছে বহু দিন ধরেই।  নতুন উদ্যোগের মধ্য দিয়ে এ প্রক্রিয়া কতখানি এগুবে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

Leave a Reply