ঢাকা, ২০১৯-০৬-২০ ১১:৫১:৪৭, বৃহস্পতিবার

Ekushey Television Ltd.

প্রেমিকার বাড়িতে অনশন, অবশেষে ভালোবাসার জয় (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:৫৬ পিএম, ৪ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার | আপডেট: ০২:৪০ পিএম, ৪ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার

ভালোবাসার দাবিতে প্রেমিক তার প্রেমিকার বাড়িতে অনশনে বসেছেন। সঙ্গে নিয়েছেন প্ল্যাকার্ড। তাতে লেখা আছে ‘আমার আট বছর ফিরিয়ে দাও’। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার ধূপগুড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রেমিককে আশপাশের লোকজন বোঝানোর চেষ্টা করছেন, কিন্তু যুবক অনড়। প্রেমিকা সাড়া না দিলে অনশন তুলবেন না তিনি।

এভাবে যুবকটির শরীর ক্রমে খারাপ হওয়ায় অবশেষে প্রেমিকার বাড়ির বরফ গলল। দু’পক্ষ রাজি হওয়ায় রাতেই মেয়েটিকে সিঁদুর পরিয়ে দেন যুবক। মন্দিরে মালাবদল হয়। রাতে ধূপগুড়ির মানুষ খুশি, কারণ ‘জয় হয়েছে ভালবাসার’।

জানা গেছে, প্রেমিকার বাড়ি শহরের কলেজপাড়ায়। তার সঙ্গে আলিপুরদুয়ারের এক যুবকের বিয়ে ঠিক হয়। জানতে পেরে রোববার প্রেমিকার বাড়ির সামনে অনশনে বসেন স্থানীয় যুবক অনন্ত বর্মণ।

যুবকটি জানায়, মেয়েটির সঙ্গে তার আট বছর ধরে সম্পর্ক। সম্পর্ক ভেঙে হঠাৎ কাউকে বিয়ে করে চলে যাওয়াটা ঠিক নয়।

অনন্ত আরও দাবি করেন, তার সঙ্গেই বিয়ে দিতে হবে মেয়েটির। তার বাড়ির লোকেরাও সম্পূর্ণ ভাবে তারই পাশে। বাড়ির ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে, এই আশঙ্কায় অনন্তর বাড়ির লোকেরা মেয়েটির বাড়িতে যান।

স্থানীয়েরাও মেয়ের বাড়ি লোকেদের প্রশ্ন করেন, সব জানা সত্ত্বেও কেন তারা লুকিয়ে অন্যত্র মেয়ের বিয়ে ঠিক করছেন? মেয়ের বাড়ির লোকেদের অবশ্য দাবি, বিয়েতে মেয়ের আপত্তি ছিল না। বিষয়টি নিয়ে মেয়ের বাড়ির লোকজন পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করেন।

এর মধ্যে সোমবার আলিপুর দুয়ার থেকে পাত্রের বাড়ির লোক মেয়েটির বাড়িতে আসেন। অনন্ত তাদের বাঁধা দেন। সব দেখে এলাকার মানুষ এগিয়ে আসেন।

তারা প্রেমিকযুগলকে মিলিয়ে দিতে উদ্যোগী হন। রাতে অনন্তের বাড়িতে মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সিঁদুর পরিয়ে তারা যান স্থানীয় কালী মন্দিরে। শাস্ত্র মেনে মন্দিরেই মালাবদল হয়।

ভালবাসার জয় পাওয়ার পরে অনন্ত বলেন, ‘‘ওর সঙ্গে আমার সম্পর্ক অনেক দিনের। আমরা দুজনেই খুশি।’’

ভিডিও :

 

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার

এমএইচ/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি