ঢাকা, ২০১৯-০৫-২২ ১১:২১:৫০, বুধবার

Ekushey Television Ltd.

মুখে পেট্রল ঢেলে বাংলাদেশিকে হত্যা করল বিএসএফ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:১২ পিএম, ১১ মে ২০১৯ শনিবার | আপডেট: ০৩:২৭ পিএম, ১১ মে ২০১৯ শনিবার

সাতক্ষীরা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) নির্যাতনে এক বাংলাদেশি শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহত শ্রমিকের নাম কবির হোসেন (৩২)। তিনি সাতক্ষীরা সদর থানার কালিয়ানি ছয়ঘরিয়া গ্রামের আবদুল আজিজের ছেলে। পরিবারে অভিযোগ, বিএসএফ সদস্যরা তার মুখে পেট্রল ঢেলে নির্যাতন করে হত্যা করেছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, নিহতের দেহে নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তবে কিভাবে মারা গেছে মেডিকেল রিপোর্ট ছাড়া নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত করা হবে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার রাতে ভারতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় বিএসএফ সদস্যরা তাকে ধরে নিয়ে যায় এবং ব্যাপক নির্যাতন করে সীমান্তে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে আজ ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহত শ্রমিক কবির হোসেন সীমান্তের ওপারে ভারতে শ্রমিকের কাজ করতেন। কাজ শেষে শুক্রবার রাতে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বছিরহাট থানার ডুগলি ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা তাকে আটক করার পর তার ওপর ব্যাপক নির্যাতন চালায়। পরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পুশখালী সীমান্তে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ফেলে যায়।

আজ ভোরে গ্রামবাসী তাকে পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরিবারে অভিযোগ, বিএসএফ সদস্যরা কবিরের মুখে পেট্রোল ঢেলে নির্যাতন চালিয়েছে। তবে সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার মহিউদ্দিন তাকে বিএসএফ সরাসরি মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, ‌কবির দেশের ভেতরেই কোন্দলে মারা গেছে। পরে সীমান্তে ফেলে গেছে।

 

টিআর/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি