ঢাকা, ২০১৯-০৫-১৯ ২২:৪০:৩৭, রবিবার

Ekushey Television Ltd.

রেকর্ড ৮.১৩% প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪৩ এএম, ২০ মার্চ ২০১৯ বুধবার | আপডেট: ০৪:০১ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৯ বুধবার

চলতি (২০১৮-১৯) অর্থবছর শেষে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি প্রথমবারের মত ৮ শতাংশের ঘর ছাড়িয়ে যাবে বলে প্রাক্কলন করেছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। পাশাপাশি বছর শেষে মাথাপিছু জাতীয় আয় দাঁড়াবে এক হাজার ৯০৯ ডলার।

অর্থবছরের জুলাই থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আট মাসের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে বিবিএস জিডিপির এই তথ্য প্রাক্কলন করেছে।

গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে বিবিএসের তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ তথ্য জানান।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, গত অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ। এবার তা বেড়ে ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ হতে পারে। টাকার অঙ্কে জিডিপির আকার দাঁড়াবে ২৫ লাখ ৩৬ হাজার ১৭৭ কোটি। আগের বছর তা ছিল ২২ লাখ ৫০ হাজার ৪৭৯ কোটি টাকা।

প্রবৃদ্ধি বাড়ার কারণ হিসেবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের রফতানি আয় বেড়েছে। বেসরকারি বিনিয়োগ কিছুটা বেড়েছে। ম্যানুফ্যাকচারিং খাতের আয়ও বেড়েছে। সেবা খাত প্রসারিত হয়েছে। এ সব কারণে প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশ ছাড়িয়েছে। আর আগামী তিন বছরের মধ্যে প্রবৃদ্ধির হার দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাবে বলে জানান তিনি।

বর্তমান সরকারের টানা দুই মেয়াদে (২০০৯-১৮) জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৬-এর বৃত্ত ছেড়ে ৭ শতাংশও পেরিয়ে গেছে। টানা তৃতীয় মেয়াদে দায়িত্ব নেওয়ার মাত্র আড়াই মাসের মধ্যেই জানা গেল, প্রবৃদ্ধি এবার ৮ শতাংশ ছাড়াবে।

বিবিএস বলছে, জিডিপির প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি মাথাপিছু জাতীয় আয়ও বেড়েছে। বছর শেষে তা এক হাজার ৯০৯ ডলার (এক লাখ ৬০ হাজার ৩৫৬ টাকা) হতে পারে বলে প্রক্ষেপণ করেছে তারা। অর্থাৎ ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে একেকজনের বার্ষিক আয় হতে পারে এক লাখ ৬০ হাজার ৩৫৬ টাকা। সে হিসাবে এক বছরে মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৫৮ ডলার।

প্রসঙ্গত, বিবিএসের এই প্রাক্কলন বাড়তেও পারে আবার কমতেও পারে। কারণ এখন যে তথ্য দেওয়া হয়েছে তা আট মাসের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে। পুরো বছরের তথ্য বিশ্লেষণ করে চূড়ান্ত তথ্য দেওয়া হবে অর্থবছর শেষে।



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি