ঢাকা, ২০১৯-০৬-২০ ১৯:৩৩:১৫, বৃহস্পতিবার

দ্বিতীয় মেঘনা, গোমতী সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

দ্বিতীয় মেঘনা, গোমতী সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দ্বিতীয় মেঘনা সেতু এবং দ্বিতীয় গোমতী সেতু উদ্বোধন করেছেন। ফলে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে বাণিজ্যিক রাজধানীখ্যাত বন্দর নগরী চট্টগ্রামের সড়ক পথের চলাচলে আজ থেকে এক নবদিগন্তের সূচনা হলো।
সৈয়দপুর বিমানবন্ধরে উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ (ভিডিও)

এবার আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত হচ্ছে সৈয়দপুর বিমানবন্দর। দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে নেপাল ও ভূটানের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগে বাণিজ্য সম্প্রসারণের পাশাপাশি বাড়বে নানামুখী কার্যক্রম। উড়োজাহাজ পার্কিং ও নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ কাজ চলছে। বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণে অধিগ্রহণ করা হচ্ছে জমি। বর্তমান সরকারের গত মেয়াদেই সৈয়দপুর বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারই ধারাবাহিকতায় শুরু হয়েছে উড়োজাহাজ পার্কিং ও নতুন টার্মিনাল ভবনের নির্মাণ কাজ। বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণসহ অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণের জন্য সরকারী খাস জমির পাশাপাশি, সৈয়দপুর এবং পার্বতীপুরের মোট ৮৫৩ একর জমি পড়বে প্রকল্পের আওতায়। এসব জমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। এদিকে সরকারের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে যথাযথ ক্ষতিপূরণ চেয়েছেন জমির মালিকরা। এসব জমি মালিকদের ক্ষতিপুরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিতের আশ্বাসও দিয়েছে জেলা প্রশাসন। বর্তমানে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে বাংলাদেশ বিমানের দুটিসহ মোট ৮টি উড়োজাহাহ উঠানামা করে। এটিকে সম্প্রসারিত করে নেপাল ও ভূটানসহ আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্কে অন্তর্ভূক্ত করার পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে সরকার। আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মাধ্যমে এগিয়ে যাবে উত্তরাঞ্চলের অর্থনীতি, এটি এখন প্রত্যাশা।

শুক্রবার পদ্মা সেতুতে স্থায়ীভাবে বসবে আরেকটি স্প্যান

এখন পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে ১০টি স্প্যান। আগামীকাল শুক্রবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বসবে আরও একটি স্প্যান। ৩বি স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে আগামীকাল সকালে রওনা দিবে। ওই দিনই ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যানটি বসানো হবে। পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সেতুতে স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে ১০টি স্প্যান এবং অস্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে দুটি স্প্যান। সে হিসেবে ৩বি স্প্যানটি স্থায়ীভাবে বসানো একাদশ স্প্যান হবে। এ স্প্যানটি বসানো হলে সেতুর মোট ১৯৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে। জাজিরাপ্রান্তে সেতুর ১৩৫০ মিটার ও মাওয়া প্রান্তের একটি স্থায়ী ও একটি অস্থায়ী স্প্যান মিলে মোট ৩০০ মিটার এবং সেতুর মাঝ বরাবর একটি স্প্যান অস্থায়ীভাবে বসানোয় সেতুর মোট ১৮০০ মিটার আগেই দৃশ্যমান আছে। তবে, স্প্যানগুলো ভিন্ন ভিন্ন মডিউলে বসানোর কারনে দৃশ্যমান অংশগুলো এক সারিতে নয় বরং, বিচ্ছিন্নভাবে থাকবে। এর আগে কয়েক দফায় এই স্প্যানটি বাসানোর তারিখ পরিবর্তন করা হয়। পদ্মা নদীতে নাব্য সংকট এবং ১৪ নম্বর পিলারে লিফটিং হ্যাঙ্গার না বসাতে পারার কারণে স্প্যান ৩-বি পিলারের ওপর বসানোর শিডিউল পেছায় পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ। প্রকৌশলী সূত্রে জানা যায়, মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে তিন হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেন ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের প্রতিটি স্প্যান বহন করে। এরপর বসানো হয় পিলারের ওপর। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পদ্মাসেতুতে বসানো হয় প্রথম স্প্যান। এসএ/  

পদ্মা সেতুতে ১২তম স্প্যান বসছে আজ

শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা প্রান্তে পদ্মা সেতুতে দ্বাদশ স্প্যান ‘৫-এফ’ (সুপার স্ট্রাকচার) বসছে আজ সোমবার। মাঝপদ্মায় সেতুর ২০ ও ২১ নম্বর পিলারের ওপর বসবে এই স্প্যানটি। এর মাধ্যমে সেতুর এক হাজার ৮০০ মিটার দৃশ্যমান হবে। সোমবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে ধূসর রংয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ও ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি নিয়ে তিন হাজার ৬০০টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেনটি রওনা করে। পদ্মা সেতু প্রকল্পের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল কাদের মুরাদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা থাকলেও ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র কারণে তা বাতিল করেন সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা।  উল্লেখ্য, পদ্মাসেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের ওপর প্রথম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর দ্বিতীয় স্প্যান, ১১ মার্চ ৩৯ ও ৪০ নম্বর পিলারের ওপর তৃতীয় স্প্যান, ১৩ মে ৪০ ও ৪১ নম্বর পিলারের ওপর চতুর্থ স্প্যান, ২৯ জুন ৪১ ও ৪২ নম্বর পিলারের ওপর পঞ্চম স্প্যান, ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি ৩৬ ও ৩৭ নম্বর পিলারের ওপর ষষ্ঠ স্প্যান ও ২০ ফেব্রুয়ারি ৩৫ ও ৩৬ নম্বর পিলারের ওপর সপ্তম স্প্যান, মাওয়া প্রান্তের ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর অষ্টম স্প্যান, জাজিরা প্রান্তে ২১ মার্চ ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর নবম স্প্যান, ১০ এপ্রিল ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারের ওপর দশম স্প্যান, সবশেষ গত ২৩ এপ্রিল ৩৩ ও ৩৪ নম্বর পিলারের উপর একাদশ স্প্যানটি বসানো হয়। একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি