ঢাকা, ২০১৯-০৪-২৬ ৭:৫৩:২৮, শুক্রবার

ভারতের টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের জাহানারা

ভারতের টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের জাহানারা

ভারতের উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশের পেসার জাহানারা আলম। মেয়েদের ক্রিকেটে দেশের বাইরের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে ডাক পাওয়া বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার তিনিই। উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ গত বছর থেকে শুরু করেছে ভারত। সেবার ছিল দুটি দল নিয়ে স্রেফ একটি প্রদর্শনী ম্যাচের মতো। এবার তিন দল নিয়ে পূর্নাঙ্গ টুর্নামেন্টই হতে যাচ্ছে। জাহানারা খেলবেন ভেলোসিটি দলে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এখন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা। মেয়েদের নিয়েও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) ইচ্ছা আছে আইপিএল আয়োজনের। সেই লক্ষ্যেই গত বছর থেকে ‘উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ’ নামে ‘রিহার্সাল’ টুর্নামেন্ট শুরু করেছে। আইপিএলের আদলে চালু হওয়া এই প্রতিযোগিতায় আগের দুই দল- ট্রেইলব্লেজারস ও সুপারনোভাসের সঙ্গে এবার যোগ করা হয়েছে ভোলোসিটিকে। নতুন এই দলটিতেই সুযোগ পেয়েছেন জাহানারা। ২ মে ভোলোসিটির ক্যাম্পে যোগ দিতে দেশ ছাড়বেন বাংলাদেশি পেসার। জাহানারার দলের ম্যাচ ৮ ও ৯ মে। তবে ভেলোসিটি ফাইনালে উঠলে তিনি আরও এক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন। আইপিএলের আদলে হওয়া এই প্রতিযোগিতায় সুযোগ পেয়ে দারুণ রোমাঞ্চিত জাহানারা। তিনি বলেন, এমন একটি আসরে সুযোগ পাওয়া আমার জন্য দারুণ ব্যাপার। আমি কেবল অংশগ্রহণের জন্যই ওখানে যাচ্ছি না, আশা করি খেলার সুযোগও পাবো। এই ধরনের টুর্নামেন্টে অভিজ্ঞতা বিনিময় করা যায়। ধন্যবাদ বিসিবিকে (বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড),ধন্যবাদ আয়োজকদের, আমাকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। ৬ মে থেকে শুরু হবে এই টুর্নামেন্ট। গত বছর দুই দল নিয়ে একটি ম্যাচ আয়োজন করা হলেও এবার এক দল বাড়ায় খেলা হবে চারটি। প্রত্যেক দল একবার মুখোমুখি হবে একে অন্যের। এরপর পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা দুই দল খেলবে ফাইনাল। ৬ মে জয়পুরের সাওয়াই মানসি স্টেডিয়ামে সুপারনোভাস ও ট্রেইলব্লেজারসের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ। ৮ মে একই ভেন্যুতে জাহানারার ভেলোসিটি লড়বে ট্রেইলব্লেজারসের বিপক্ষে। পরের দিন সুপারনোভাস-ভেলোসিটি ম্যাচ দিয়ে শেষ হবে লিগ পর্ব। তিন ম্যাচে পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে থাকা দুই দল ১১ মে ফাইনালে মুখোমুখি হবে জয়পুরে। এবারের আসরে তিন দলের অধিনায়ক হারমানপ্রীত কর, স্মৃতি মন্দনা ও মিতালি রাজের মতো ক্রিকেটারদের সঙ্গে অংশ নিচ্ছেন বেশ কয়েকজন বিদেশি তারকা। আইপিএলের মতো এই প্রতিযোগিতাতেও দলগুলো একাদশে রাখতে পারবে চার বিদেশি ক্রিকেটার। আরকে//
জয়ের লক্ষ্যে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ

বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ ইন্টারন্যাশনাল গোল্ড কাপে ‘বি’ গ্রুপের সেরা হওয়ার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে কিরগিজস্তান ও বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় এ খেলায় গ্রুপ সেরা হতে ড্রই যথেষ্ট বাংলাদেশের জন্য। তবে তাতে সন্তুষ্ট থাকতে চান না স্বাগতিক কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। কিরগিজস্তানের বিপক্ষে জয়ই তার একমাত্র চাওয়া। আগেই সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করা দুই দলের মধ্যে বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল। একই দলের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছিল কিরগিজস্তান। কিরগিজস্তানের সঙ্গে ড্র করলে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে গ্রুপ সেরা হবে বাংলাদেশ। তবে প্রতিপক্ষকে সমীহ করে রব্বানী জানালেন জয়ের লক্ষ্য। তিনি বলেন, আমরা সেমি-ফাইনালে উঠে গেছি, কিন্তু আমরা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই খেলব। ড্র হলেও আমরা গ্রুপ সেরা হবো। কিন্তু আমরা জয় চাই। কিরগিজস্তানের খেলোয়াড়রা শারীরিকভাবে শক্তিশালী। ওরা লম্বা। আমাদের খেলোয়াড়রা ওদের মতো লম্বা নয়। এটা একটা সমস্যা। তবে আমাদের লক্ষ্য থাকবে শারীরিক লড়াইয়ে না গিয়ে গতিময় খেলে ম্যাচ বের করে নেওয়া। আশা করি মেয়েরা ভালো খেলবে এবং ম্যাচটা জিতবে। ২০১৬ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইয়ে কিরগিজস্তানকে ১০-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়ার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। তবে রব্বানী স্কোরলাইন নিয়ে ভাবছেন না। বয়সভিত্তিক পর্যায়ে এর আগে আমরা ওদের সঙ্গে একবারই খেলেছি। ১০-০ গোলে জিতেছিলাম। তবে ওই ম্যাচের পর তিনটা বছর পার হয়েছে। ওরাও আগের চেয়ে শক্তিশালী হয়েছে। এ ম্যাচে তাই স্কোরলাইন নিয়ে ভাবছি না। আরব আমিরাতের বিপক্ষে গোলের একাধিক সুযোগ নষ্ট করেছিলেন দুই ফরোয়ার্ড সিরাত জাহান স্বপ্না ও কৃষ্ণা রানী সরকার। গত তিন দিনে আগের ম্যাচের ভুল শুধরে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে বলেও জানান কোচ। তিন দিন আমরা বিশ্রাম পেয়েছি। এটা আমাদের জন্য ইতিবাচক দিক। এই তিন দিনে থিওরিটিক্যাল ও ট্যাকটিক্যাল বিষয় নিয়ে কাজ করেছি। আরব আমিরাতের বিপক্ষে যে ভুলগুলো করেছি, সেগুলো নিয়ে কাজ করেছি। মেয়েদের সেগুলো বোঝানো হয়েছে। আরব আমিরাত-কিরগিজস্তান ম্যাচ মারিয়া মান্ডা-কৃষ্ণারা দেখেছেন টিভিতে। সেই দেখা থেকে সতীর্থদের গোল পাওয়ার উপায় জানালেন মারিয়া। ওরা ওপরের দিকে উঠে আসে। এই সুযোগটা আমাদের কাজে লাগাতে হবে। ওই সময় যদি আক্রমণভাগের খেলোয়াড়দের বল সরবরাহ করা যায়, তাহলে তারা সুযোগ কাজে লাগাতে পারবে। প্রথম ম্যাচের গোলদাতা কৃষ্ণার লক্ষ্য দুটি, আমি যেহেতু ফরোয়ার্ড, অবশ্যই গোল করতে চাইব। যদি নিজে গোল না পাই, তাহলে সতীর্থদের দিয়ে গোল করাব। আরকে//

অবশেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা

আগামী ৩০ মে মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম মাঠে নামবে ৩১ মে। তাদের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। এর আগে বাংলাদেশ, ভারত, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেছে। অবশেষে এবার দল ঘোষণা করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে রয়েছেন- জেসন হোল্ডার (অধিনায়ক), ক্রিস গেইল, আন্দ্রে রাসেল, এভিন লুইস, ড্যারেন ব্রাভো, কার্লোস ব্রাথওয়েট, শিমরন হেটমায়ার, শাই হোপ (উইকেটরক্ষক), নিকোলাস পুরান (উইকেটরক্ষক), অ্যাশলে নার্স, কেমার রোচ, ওশানে থমাস, শেল্ডন কট্রেল, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন ও শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। দল ঘোষণা প্রসঙ্গে কিংবদন্তি ক্রিকেটার ব্রায়ান লারা মনে করেন, আসন্ন বিশ্বকাপে তাদের দলটির ভালো করার সম্ভাবনা প্রবল। ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবারের বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলতে পারে বলে মনে করেন তিনি। লারা বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ধারাবাহিক ক্রিকেট খেলতে হবে। আমরা ইংল্যান্ড ও ভারতকে হারাতে পারি, সেটা ইতিমধ্যে দেখিয়ে দিয়েছি। নিজেদের দিনে যেকোনো দলকে হারাতে পারি আমরা। তবে আমরা যখন বাংলাদেশ অথবা আফগানিস্তানের কাছে হারি, তখন আমাদের সবকিছু শেষ হয়ে যায়। যে কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে এটা এড়াতে হবে। ক্যারিবীয় দলটিকে সেমিফাইনালে দেখতে চাই।’ এসএ/  

একশো বছর আগে যেভাবে শুরু হয়েছিলো জব্বারের বলীখেলা

এবার একশ’ দশ বছর হচ্ছে ‘জব্বারের বলীখেলা’ নামের চট্টগ্রামের বিখ্যাত কুস্তি প্রতিযোগিতাটির। প্রতি বছর মূলত এই সময়েই বন্দরনগরী চট্টগ্রামের লালদীঘির মাঠে এর আয়োজন হয়। বলী খেলাকে ঘিরে থাকে বৈশাখী মেলার আয়োজন। গতকাল বুধবার বিকেল চারটার দিকে এই আয়োজনের উদ্বোধন হয়। তিনদিন ধরে চলবে মেলা। তবে মূল কুস্তি প্রতিযোগিতা শুরু হচ্ছে আজ বৃহস্পতিবার থেকে। যেভাবে শুরু হয়েছিলো এই কুস্তি প্রতিযোগিতা বলী খেলা মানে কুস্তি প্রতিযোগিতা। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কুস্তিকে বলী খেলা নামে ডাকা হয়। ১৯০৯ সালে প্রথম এই প্রতিযোগিতার প্রবর্তন করেন চট্টগ্রামের জমিদার আব্দুল জব্বার সওদাগর। নামই বলে দেয় স্থানীয় প্রভাবশালী এবং একজন ধনী ব্যক্তি ছিলেন তিনি। এই বলীখেলার উপর গবেষণা করেছেন চিটাগাং সেন্টার ফর অ্যাডভ্যান্স স্টাডিজের সদস্য সচিব ড. শামসুল হোসাইন। বিবিসিকে তিনি বলেন, ‘সে সময় যখন ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন চলছিলো- রাজনৈতিক একটা আইডিয়া এটার পেছনে এসে তখন দাঁড়িয়ে যায়। তখন তরুণ প্রজন্মকে শারীরিকভাবে সমর্থ করার ধারণা থেকে এই প্রতিযোগিতা প্রথম চালু করেন জব্বার সওদাগর। ‘উদ্দেশ্য ছিল, তারা যেন আন্দোলনে অংশ নিতে পারেন তার জন্য শারীরিকভাবে তাদের প্রস্তুত করা।’ ড. শামসুল হোসাইন বলছিলেন, ‘এর মধ্যে আরেকটি বিষয় ছিল মুসলিম তরুণদের অংশগ্রহণ বাড়ানো। সেই সময় ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে চট্টগ্রামের হিন্দুদের অংশগ্রহণ বেশি ছিল।‘ তিনি আরও বলেন, ‘কুস্তি এই অঞ্চলের অত্যন্ত প্রাচীন সাংস্কৃতিক উপকরণ। মধ্যযুগে সেনাবাহিনীতে যারা চাকরি নিতো তাদের শারীরিক সামর্থ্য বৃদ্ধির জন্য তারা কুস্তি করতেন। সেখান থেকেই এর শুরু।’ আব্দুল জব্বার সওদাগর নিজের নামেই এই বলীখেলার নামকরণ করেছেন। সেখান থেকেই এর নাম জব্বারের বলীখেলা। স্মৃতিচারণ জব্বার সওদাগরের নাতির আব্দুল জব্বার সওদাগরের ছেলের ঘরের নাতি শওকত আনোয়ার বাদলের জন্ম ১৯৫৫ সালে। এই প্রতিযোগিতার শুরুটা না দেখলেও তার বাবার মুখে শুরুর দিককার অনেক গল্প তিনি শুনেছেন। বিবিসি তিনি বলেন, ‘আমার দাদার মৃত্যুর পর আমার বাবা এর দায়িত্ব নেন। তিনিই এটার আয়োজন করতেন। আমরা যখন দেখেছি, তখন এই প্রতিযোগিতা এতটা প্রসারিত ছিল না। এটি শুধু লালদিঘী এলাকার বলীদের জন্যই আয়োজন করা হতো।’ তিনি সেই সময়কার পরিবেশ বর্ণনা করে বলছিলেন, ‘সে সময় এলাকায় ঢোল বাজত, সঙ্গে থাকতো কুস্তিগীরেরা। আমরা ঢোলের পিছে পিছে ঘুরতাম। এভাবে তারা এসে মাঠে ঢুকত। আমি তখন স্কুলে পড়ি।’ তিনি জানান, তিনি তার বাবার মুখে শুনেছেন খেলাটা কিছুটা প্রচলন হওয়ার পর বলীরা সেই সময় মাস দু’য়েক আগে এসে জড়ো হতেন। তাদের বাড়িতেই বড় একটা বৈঠকখানা ছিল। সেই ঘরেই থাকতেন। সেখানেই তারা খাওয়াদাওয়া করতেন এবং দিনভর নানা শারীরিক কসরত ও অনুশীলন করতেন, প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুতি নিতেন। আনোয়ার ঠিক সময়টা সেভাবে মনে করতে পারেন না ঠিক কবে তার বাবার হাতে এই আয়োজনের দায়িত্ব বর্তায়। তবে তিনি বাবার মৃত্যুর পর ১৯৮৬ সাল থেকে এই আয়োজনের নানা খুঁটিনাটি বিষয়ের সঙ্গে আরও সরাসরি জড়িয়ে গেছেন। সারা দেশের বলীরা যেভাবে যোগ দিলেন শওকত আনোয়ার জানান, ধীরে ধীরে চট্টগ্রামের নানা এলাকার বলী বা কুস্তিগীরেরা এই প্রতিযোগিতায় আসতে শুরু করেন। আনোয়ার বলেন, ‘আমি যখন লেখাপড়া করি তখন দেখতাম চট্টগ্রামের আশপাশের জেলা - নোয়াখালী, কুমিল্লা এ সব জায়গা থেকেও বলীরা আসতে শুরু করলো। এরপর সারা দেশ থেকে আসতে শুরু করে। এমনকি একবার আমার মনে আছে, ফ্রান্স থেকে দুজন কুস্তিগীর এখানে অংশগ্রহণ করেছিলো।’ সত্তরের দশক থেকে ধীরে ধীরে সারা দেশের বলীরা আসছেন বলে জানান আনোয়ার। তিনি বলছেন, এটার যখন প্রথম টেলিভিশনে সম্প্রচার শুরু হয় তখনই এর সম্পর্কে সবাই আরও ভালোভাবে জানতে পারেন। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আই প্রথম এর সম্প্রচার করেছিলো। এরপর এখন সব টিভি চ্যানেল সম্প্রচার করছে আর গণমাধ্যমের আগ্রহের কারণে জব্বারের বলীখেলা সম্পর্কে আরও প্রচার হয়েছে, জানান আনোয়ার। এখন যেভাবে হয় এই প্রতিযোগিতা জব্বারের বলীখেলার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চকোরিয়ার জীবন বলী। তবে এই প্রতিযোগিতার সবচাইতে বেশি পরিচিত নাম কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার দিদারুল আলম বা দিদার বলী, যিনি সব মিলিয়ে সাতবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। তিনি অবশ্য বছর দু’য়েক আগে অবসরে গেছেন। জব্বারের বলীখেলা আয়োজন কমিটির সভাপতি জওহরলাল হাজারী। তিনি জানান, এখনও পর্যন্ত এবারের বলী খেলায় ৬০ জন কুস্তিগীর অংশগ্রহণের জন্য নাম লিখিয়েছেন। তবে সংখ্যাটা আরও বড় হবে। সাধারণত দেড়শ’ জনের মতো কুস্তিগীর এখানে আসেন। তিনি আরও বলেন, ‘সারা বাংলাদেশে যত কুস্তিগীর আছেন, যাদের প্রতিভা বিকশিত হওয়ার কোন পন্থা নেই, তাদের এখানে আসতে সহযোগিতা করা হয়। তাদের এই প্রতিযোগিতায় কসরত প্রদর্শন করার সুযোগ দেয়া হয়।’ এখানে পাঁচটি ধাপে প্রতিযোগিতা হয়ে থাকে। প্রথম বাছাইয়ের পরের রাউন্ড পর্বে ৫০ জনকে নিয়ে খেলা হয়। সেখান থেকে ২৫ জন যায় মূল চ্যাম্পিয়ন পর্বে। এখানে কোন পয়েন্ট ব্যবস্থা নেই। কুস্তি করতে করতে মাটিতে যার পিঠ যে ঠেসে ধরতে পারবে সে-ই বিজয়ী হবে। এছাড়া বলী খেলাকে কেন্দ্র করে তিন দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা চলে। দুর-দূরান্ত থেকে আসা বিক্রেতারা গ্রামীণ নানা সামগ্রী নিয়ে পসরা সাজিয়ে বসেন। সেটিও মেলার অন্যতম আকর্ষণ। জওহরলাল হাজারী আরও বলেন, চট্টগ্রামের বলী খেলাকে আরও প্রসারের চিন্তা করা হচ্ছে। সে রকম সরকারি আশ্বাস রয়েছে। শহরের স্টেডিয়ামের পাশে প্রশিক্ষণের জন্য একটি কেন্দ্রে স্থাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে। সূত্র: বিবিসি একে//

বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ: সন্ধ্যায় মুখোমুখি মঙ্গোলিয়া-লাওস

দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া মেয়েদের আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট বঙ্গমাতা গোল্ডকাপে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুখোমুখি হবে মঙ্গোলিয়া-লাওস। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাওয়া ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি ও আরটিভিতে। প্রথম ম্যাচে কিরগিজিস্তানের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয়ে দারুণ আত্মবিশ্বাসী মঙ্গোলিয়া। অন্যদিকে এ ম্যাচ দিয়ে আসর শুরু করবে লাওসের মেয়েরা। তাই জয় ভিন্ন অন্য কিছু ভাবছে না সাবোইয়া খামের শিষ্যরা। লাওসের মেয়েদের চেয়ে র‌্যাংকিংয়ে ৩৮ ধাপ এগিয়ে মঙ্গোলিয়ার মেয়েরা। ঘরোয়া ফুটবলে লিগ থাকায় তাদের ফুটবলে উন্নতিটা চোখে পড়ার মত। তাই কোচ নাওকো কায়ামাতোর লক্ষ্য টুর্নামেন্টে ফাইনালে খেলা। সে জন্য ফিনিশিংয়ে আর আক্রমণ ভাগে ভালো করতে চায় তারা। মঙ্গোলিয়ার কোচ নাওকো কায়ামাতো বলেন, এ ম্যাচে জিতলেই আমরা টেবিলের শীর্ষে থেকে সেমিফাইনালে উঠতে পারবো। লাওস ভালো দল। তবে আমার মেয়েরা নিজেদের সেরাটা দিয়েই খেলবে। প্রসঙ্গত, বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে এই টুর্নামেন্টটি বাফুফের ব্যবস্থাপনায় মেয়েদের প্রথম কোনও বৈশিক আসর। এর আগে ৫ বার আয়োজিত হয়েছে ছেলেদের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট। গেল ক’বছরে নারী ফুটবলে বাংলাদেশের ধারাবাহিক সাফল্য বিচারে সেই আদলেই একটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের চিন্তা করেছে বাফুফে। যার নামকরণ হয়েছে বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে। গেল ক’বছরে বাংলাদেশের সাফল্যগুলো এসেছে বয়সভিত্তিক আসরে। জাতীয় দল তেমন সুবিধা করতে পারেনি কোথাও। বলতে গেলে বাংলাদেশের মেয়েদের শক্তিশালী মূল জাতীয় দল গঠন এখনো প্রক্রিয়াধীন। এ কারণে এই টুর্নামেন্ট অনূর্ধ্ব-১৯ দল নিয়ে আয়োজনের পরিকল্পনা হাতে নেয় আয়োজকরা। বাংলাদেশ ছাড়াও পাঁচ দল অংশ নিচ্ছে আসরে। বয়সভিত্তিক পর্যায়ে বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশের মেয়েদের সাফল্য বিবেচনায় আসরের অন্য দলগুলো শক্তি সামর্থ্যে খুব একটা এগিয়ে নেই স্বাগতিকদের চেয়ে। বরং কিছু দলকে নিয়মিতই বড় ব্যবধানে হারানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে বাংলাদেশের। অবশ্য দল লাওস ও মঙ্গোলিয়ার বিপক্ষে আগে কখনও খেলেনি বাংলাদেশের মেয়েরা। গত সোমবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ নারী আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ ফুটবল। আগামী ৩ মে টুর্নামেন্টের শিরোপার লড়াই হওয়ার কথা ছিল। এখন একদিন পিছিয়ে ফাইনালের সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ মে।  

টাইগারদের নজর আয়ারল্যান্ডে

বিশ্বকাপের ঠিক আগে শুরু হতে যাওয়া আয়ারল্যান্ড সিরিজে গুরুত্ব বেশি দিচ্ছেন তামিম ইকবাল। কারণ তামিম মনে করেন, বিশ্বকাপে বাংলাদেশ কেমন করবে, তার নিয়ামক হয়ে উঠবে আসন্ন এই সিরিজ। আসন্ন বিশ্বকাপে ভালো কিছু করার জন্য তামিমের ওপর ভরসা করার কোনও বিকল্প বাংলাদেশের নেই। বিশেষ করে ইংল্যান্ডে রেকর্ডের কারণেই তার ওপর নজর থাকবে অনেক বেশি। আয়ারল্যান্ডের কন্ডিশনের কারণেই বাংলাদেশের জন্য ওখানে খেলাটা কঠিন হবে। বিশ্বকাপের আগে এখানকার কয়েকটা দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ হতে যাচ্ছে বলে তামিমের বিশ্বাস। তামিম বলেন, আয়ারল্যান্ডে প্রথম ম্যাচটা আমরা কীভাবে শুরু করি সেটা খুব ইম্পর্ট্যান্ট হবে। কারণ সেখানে আরও একটা প্রতিপক্ষ থাকবে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, যারা এখন খুব ভালো ফর্মে আছে। তবে অনেকে ভাবছেন, বিশ্বকাপের ঠিক আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ আশীর্বাদ হবে নাকি অভিশাপ? আগামী ৫ মে থেকে শুরু হতে যাওয়া এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ খেলবে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে। আয়ারল্যান্ড সিরিজটা খেলার ফলে বাংলাদেশকে খুব অল্প সময়ের মধ্যে অনেকগুলো ম্যাচ খেলতে হবে। বিশ্বকাপের আগে এই টুর্নামেন্টে ভালো করলে আত্মবিশ্বাস যেমন চূড়ায় উঠতে পারে, তেমনি খারাপ পারফরম্যান্সে মনোবল যেতে পারে তলানিতে। তবে তামিম ইকবাল ইতিবাচক দিকই দেখছেন বেশি। তিনি জানেন, এই আয়ারল্যান্ড সিরিজ বা বিশ্বকাপে তার ওপর ভরসা করবে দল। কিন্তু এগুলো নিয়ে ভাবতে চান না তিনি। এমনকি ইংল্যান্ডে নিজের আগের সাফল্য নিয়েও ভাবতে চান না। যাইহোক, বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হতে পারে বড় রান তাড়া করা। বাংলাদেশ এই ব্যাপারটায় খুব অভ্যস্ত নয়। তামিম বলছিলেন, ওখানে অনেক বড় বড় স্কোর হতে পারে। আর এই একটা জিনিসে আমরা খুব একটা অভ্যস্ত নই। বিশ্বকাপে হয়তো বেশিরভাগ ম্যাচেই আমাদের ২৮০-৩০০-৩২০ চেজ করতে হবে। ফলে এটা নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। এ কারণেই এই ট্রেনিং সেশনগুলো বা যে পাঁচটা ম্যাচ আমরা খেলবো আয়ারল্যান্ডে, সেগুলো এত ইম্পর্ট্যান্ট। একে//

বঙ্গবন্ধু চ্যাম্পের হ্যান্ডবলে স্বর্ণপদক পেলো যারা

দেশের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পসের হ্যান্ডবল ইভেন্টে নারী বিভাগে গণ বিশ্ববিদ্যালয় এবং পুরুষ বিভাগে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পাশাপাশি স্বর্ণপদক অর্জন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়। আজ বুধবার (২৪ এপ্রিল) হ্যান্ডবল ইভেন্টে নারী বিভাগের ফাইনাল খেলা ও পুরুষ বিভাগের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী খেলা হ্যান্ডবল ফেডারেশনের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। নারী বিভাগের ফাইনালে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখোমুখি হয় ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়। দুই দলের চমৎকার নৈপূণ্যে একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে গণ বিশ্ববিদ্যালয় ২৫-১৪ সেটের ব্যবধানে ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়কে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে জিতে নেয় স্বর্ণপদক। অপর ফাইনালিস্ট হিসেবে ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় রানার আপ হয়ে রৌপ্যপদক জেতার গৌরব অর্জন করে। অন্যদিকে পুরুষ বিভাগের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী খেলায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। প্রতিযোগিতায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ৩১-১২ সেটের ব্যবধানে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিকে পরাজিত করে তৃতীয় স্থান অধিকার করে ব্রোঞ্জ পদক লাভ করে। ইতোপূর্বে হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতায় পুরুষ বিভাগের যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়কে স্বর্ণপদক জিতে নেয়। খেলা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তাজুল ইসলাম চৌধুরী। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক পোলার আইসক্রিমের হেড অফ এইচআর অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন মেহরাজ হামিদ ও হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কোহিনুর উপস্থিত ছিলেন। গত ২৯ মার্চ, ২০১৯ হাতির ঝিলে সাইক্লিং ও ম্যারাথন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পসের উদ্বোধন হয়। তারপর থেকে প্রতিদিনই প্রতিযোগিতার ভেন্যুগুলো জমে উঠেছে এক একটা প্রতিযোগিতা। আরকে//

আমিরাতের বিদায়, সেমিতে বাংলাদেশ ও কিরগিজস্তান

বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ নারী আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ ফুটবলে কিরগিজ মেয়েরা উঠে গেছে শেষ চারে। বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা। দুই হারে বিদায় নিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরাত। কিরগিজস্তানের জয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশেরও। ফিফা র্যাংকিংয়ে টুর্নামেন্টের ৬ দেশের মধ্যে শীর্ষে সংযুক্ত আরব আমিরাত। প্রথম ম্যাচে তারা বাংলাদেশের কাছে হারলেও হজম করেছিল মাত্র ২ গোল। কিরগিজস্তানের বিরুদ্ধে তাদেরই ফেবারিট ধরেছিল অনেকে; কিন্তু সেই আরব আমিরাতই সবার আগে বিদায় নিলো টুর্নামেন্ট থেকে। আরব আমিরাতের দুর্ভাগ্যও বলতে হবে। তারা পেনাল্টি মিস করেছে। শেষ ৭ মিনিট ১০ জনের কিরগিজস্তানকে পেয়েও ম্যাচে ফিরতে পারেনি। শেষ বাঁশির পর হতাশ আমিরাতের মেয়েরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন পরস্পরকে জড়িয়ে ধরে। ম্যাচটি ড্র করে হোটেলে ফিরতে পারলেও আমিরাতের আশা বেঁচে থাকতো। সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে পারেনি মধ্যপ্রচ্যের দেশটির মেয়েরা। ৬ মিনিটে বরনবেকভার গোলে এগিয়ে যায় কিরগিজস্তান। ১৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কেনজেবুবু। ৩৮ মিনিটে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইজারকান পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান ২-১ করেন। ৮৭ মিনিটে কিরগিজস্তানের আইজারকান লালকার্ড পেয়ে মাঠের বাইরে গেলে বাকি সময় ১০ জন নিয়েই খেলতে হয় কিরগিজের মেয়েদের। সেমিফাইনাল নিশ্চিত হওয়া বাংলাদেশ ও কিরগিজস্তানের কে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে তা ঠিক হবে শুক্রবার দুই দেশের খেলার পর। বাংলাদেশ গোলগড়ে এগিয়ে থাকায় ড্র করলেই হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। জিততেই হবে কিরগিজস্তানকে। আরকে//

শিরোপার খুব কাছে বার্সা

লা লিগায় আলভেসের মাঠে জালের দেখা পেয়েছেন কার্লস আলেনা ও লুইস সুয়ারেজ। এতে শিরোপার দিকে আরও এক পা দিয়ে রাখলো বার্সেলোনা। শিরোপা থেকে আর মাত্র ৩ পয়েন্ট দূরে আছে তারা। মঙ্গলবার প্রতিপক্ষের মাঠ থেকে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে এরনেস্তো ভালভেরদের শিষ্যরা। লিগের প্রথম পর্বে গেলো আগস্টে নিজেদের মাঠে আলভেসকে ৩-০ গোলে হারায় কাতালান ক্লাবটি। প্রতিপক্ষের মাঠে একচেটিয়া প্রাধান্য বিস্তার করলেও প্রথমার্ধে জালের দেখা পায়নি বার্সেলোনা। অবশ্য ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার বড় সুযোগ ছিল অতিথিদের। কিন্তু ফিলিপে কুতিনহোর নেওয়া শট এক ডিফেন্ডারের পায়ে বাধা পেয়ে ফিরলে সুযোগ হারায় তারা। বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৫৪তম মিনিটে অপেক্ষার অবসান হয় বার্সার। ডান দিক থেকে সার্জিও রবের্তোর পাস বুদ্ধি করে ছেড়ে দিয়েছিলেন লুইস সুয়ারেজ। খুব কাছে থেকে ডান পায়ের শটে সেটা জালে জড়িয়ে দেন ২১ বছর বয়সী স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কার্লস আলেনা। এর ৬ মিনিট পর সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সুয়ারেজ। ডি-বক্সে বল আলাভেস ডিফেন্ডার তমাস পিনার হাতে লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। এতে লিগে ২১ গোল নিয়ে গোলদাতার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলেন তিনি। সেখানে আগেই ছিলো করিম বেনজেমা। ম্যাচের বাকি সময় একাধিক সুযোগ হাতছাড়া করে বার্সা। ফলে ব্যবধান আর বাড়েনি। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। এ জয়ে ৩৪ ম্যাচে ২৪ জয় ও আট ড্রয়ে ৮০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। শেষ চার ম্যাচে আর মাত্র ৩ পয়েন্ট পেলেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে তারা। ১২ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে এক ম্যাচ কম খেলা অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। আর ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। সূত্র: লাইভস্কোর ডটকম একে//

‘ক্রিকেট ঈশ্বর’ শচীন টেন্ডুলকারের জন্মদিন আজ

ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা পুজনীয় খেলোয়াড় তাকে অনায়াসে বলা যায়। তার উচ্চতায় আধুনিক যুগের ক্রিকেটে আর কোনো খেলোয়াড় উঠতে পারেন নি। সেই কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের জন্মদিন আজ। ১৯৭৩ সালের ২৪ এপ্রিল মুম্বাইয়ে জন্ম টেন্ডুলকারের। ছেলেবেলা থেকেই টেন্ডুলকারের ধ্যান জ্ঞান হলো ক্রিকেট। ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি উচ্চতার খর্বকায় মানুষটি এমন সব ক্রিকেট কীর্তি রেখে গেছেন যে, তার উচ্চতায় ভবিষ্যতেও কেউ হয়তো পৌঁছাতে পারবে না। ক্রিকেট খেলা ছাড়ালেও আইপিএল এ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গে দেখা গেছে তাকে। ক্রিকেট ছাড়া তার জীবন কল্পনাই করা যায় না।  ক্রিকেটের লিটল মাস্টার, মাস্টার ব্লাস্টার হিসেবে আখ্যা দেয়া হয় তাকে। ভক্ত-অনুসারী শচীনকে ভালোবেসে ডাকেন ‘ক্রিকেট ঈশ্বর’। ২০১১ সালে বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলে ছিলেন শচীন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি মোট ৬টি বিশ্বকাপে খেলেছেন। শেষ ম্যাচটি খেলেছেন ২০১৩ সালের ১৬ নভেম্বর। শচীন টেন্ডুলকারের ক্যারিয়ারের খাতা প্রাপ্তি-অর্জনে ভরা। শেষ ম্যাচ খেলার পরই প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে ভারত রত্ন পাওয়ার ঘোষণা শুনেছিলেন। এছাড়াও পেয়েছেন ভারতে ক্রীড়াঙ্গনে সর্বোচ্চ পুরস্কার রাজীব গান্ধী খেল রত্ন অ্যাওয়ার্ড (১৯৯৭), পদ্মশ্রী ও পদ্মবিভূষণ অ্যাওয়ার্ড। সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস এসএ/

মুখরক্ষা করতে মরিয়া ম্যানইউ

এভারটনের কাছে ০-৪ হারের প্রতিক্রিয়া! অনুতপ্ত পল পোগবা বললেন, ম্যাচটা আমরা যেভাবে খেলেছি সেটা ক্লাব আর সমর্থকদের কার্যত অসম্মান করা। এখন যা অবস্থা, তাতে সবার আগে মাঠে নেমে আমাদের মানসিকতাটা বদলে ফেলতে হবে। বুধবার ম্যানচেস্টার ডার্বির আগে ফরাসি তারকার এ হেন মন্তব্যে হইচই ব্রিটিশ ফুটবল মহলে। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের পরিস্থিতি অবশ্য তার আগেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উলে গুনার সুলশারের বিবৃতিতে। এভারটনের কাছে লজ্জার হারের পরে তিনি পরিষ্কার বলে দেন, প্রিয় ক্লাবে কোচ হিসেবে অবশ্যই একদিন আমি সফল হব। কিন্তু তখন এখনকার দলের অনেকেই হয়তো থাকবে না। ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যমে লেখা হচ্ছে, ম্যানইউ কোচ কার্যত হুমকি দিয়েছেন পোগবাদের। এবং এখন যা ছবি তাতে ম্যানইউ মুখরক্ষা করতে পারে একমাত্র বুধবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটিকে হারাতে পারলে। ইপিএল টেবলে ম্যানইউ এখন ছ’নম্বরে। পয়েন্ট ৩৪ ম্যাচে ৬৪। পাঁচ নম্বরে থাকা আর্সেনাল ৬৬ পয়েন্টে। সোমবার রাতে বার্নলির সঙ্গে ২-২ ড্র করা টেবলে চার নম্বর দল চেলসির পয়েন্ট ৬৭। এই অবস্থাতেই  লিগ শেষ হলে রেড ডেভিলসকে পরের বার আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দেখা যাবে না। ২০২১ সালে ইউরোপ-সেরার প্রতিযোগিতায় তাদের খেলতে হলে অন্তত চ্যাম্পিয়ন হয়ে আসতে হবে ইউরোপা লিগে। এমন করুণ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে পোগবা স্বয়ং বললেন, ভক্তেরা চায় এবার অন্তত আমরা জেগে উঠি। মাঠে সেরাটা দিয়ে দারুণ কিছু ফল করতে পারলেই একমাত্র আমরা ক্লাবের অসংখ্য ভক্তের মুখে হাসি ফোটাতে পারব। বলতে পারেন, সেটাই হবে আমাদের তরফ থেকে দুঃখ প্রকাশের একমাত্র রাস্তা। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রাক্তন কিংবদন্তি কোচ স্যর অ্যালেক্স ফার্গুসন এক বার বিদ্রুপ করেছিলেন ম্যানচেস্টার সিটিকে নিয়ে। বলেছিলেন, ওরা অকারণে হইচই করে এমন প্রতিবেশী। কিন্তু সব দিন সমান যায় না। বিশেষ করে পেপ গার্দিওলা দায়িত্ব নেওয়ার পরে এবং আরব দুনিয়ার পৃষ্ঠপোষকতা পেয়ে ম্যানসিটি এখন বদলে যাওয়া ক্লাব। গত বারের প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন। এ বারও রীতিমতো খেতাবের দৌড়ে। সের্খিয়ো আগুয়েরোদের লড়াই এবার ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুলের সঙ্গে। ৩৫ ম্যাচে লিভারপুলের পয়েন্ট ৮৮। একটা ম্যাচ কম খেলে ম্যানসিটি সেখানে ৮৬ পয়েন্টে। লিভারপুলের হাতে আর তিনটি ম্যাচ। তবে তাদের বাকি প্রতিপক্ষরা বেশ দুর্বল। ইতিমধ্যেই অবনমন হয়ে যাওয়া হাডার্সফিল্ড ও লিগ টেবলে তেরো নম্বরে থাকা নিউক্যাসল যেমন। ম্যানসিটির হাতে একটা ম্যাচ বেশি থাকলেও বুধবারের ডার্বি তাদের কাছে এই মুহুর্তে সব চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। যে ম্যাচ নিয়ে লিভারপুল কোচ যা বললেন তার সারকথা, ম্যানইউ যে অবস্থাতেই থাকুক ওরাই নাকি পারে এই মুহূর্তে ম্যানসিটিকে রুখে দিতে। এমন কথা বলায় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে ম্যানসিটির সমর্থকেরা যথেচ্ছ খারাপ ভাষায় আক্রমণ করলেন লিভারপুলের জার্মান কোচকে। একজন যেমন লিখলেন, যারা এভারটনকে হারাতে পারে না তারা আবার কীভাবে আমাদের পয়েন্ট কাড়বে? ক্লপ দিবাস্বপ্ন দেখছেন! ডার্বিতে টটেনহ্যাম ম্যাচে চোট পাওয়া কেভিন দ্য ব্রুইনকে পাচ্ছেন না পেপ গার্দিওলা। তবু তিনি বলে রাখলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যানইউ অপরাজেয় ছিল। কিন্তু সে সব অতীত। এখনকার ম্যানইউ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডেও ভীতিকর ক্লাব নয়,’ লিয়োনেল মেসির প্রাক্তন গুরুর মন্তব্য যেন ফার্গুসনের সেই কটাক্ষের জবাব। পেপ অবশ্য এটাও বললেন, ‘সব ম্যাচ আলাদা। ফুটবলে ভবিষ্যদ্বাণী করার মানে হয় না।’ উদ্বেগে থাকারই কথা পেপের। চ্যাম্পিয়ন হতে লিগের শেষ চারটি ম্যাচেই তাদের জিততে হবে যে। বুধবার ইপিএলে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম ম্যানচেস্টার সিটি (রাত ১২-৩০)। সূত্র: আনন্দবাজার একে//

২৪ এপ্রিল: টিভিতে আজকের খেলা

বঙ্গমাতা গোল্ডকাপে সন্ধ্যায় মুখোমুখি আরব আমিরাত-কিরগিজস্তান। এছাড়াও আজ রয়েছে প্রিমিয়ার লিগ ও লা লিগার খেলা। চলুন এক নজরে জেনে নিই টিভি পর্দায় রয়েছে আজ যে সব খেলা- ফুটবল বঙ্গমাতা গোল্ড কাপ আরব আমিরাত-কিরগিজস্তান সরাসরি, সন্ধ্যা ৬টা, বিটিভি ও আরটিভি প্রিমিয়ার লিগ ম্যানইউ-ম্যানসিটি সরাসরি, রাত ১টা, স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ওয়ান উলভারহ্যাম্পটন-আর্সেনাল সরাসরি, রাত ১২-৪৫ মিনিট, স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট টু লা লিগা অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ-ভ্যালেন্সিয়া রাত ১১-৩০ মিনিট, ফেসবুক লাইভ এস্পানিয়ল-সেল্তা ভিগো সরাসরি, রাত ১২-৩০ মিনিট ফেসবুক লাইভ ক্রিকেট আইপিএল বেঙ্গালুরু-পাঞ্জাব সরাসরি, রাত ৮-৩০ মিনিট, চ্যানেল নাইন স্টার স্পোর্টস ওয়ান ও টু টেনিস এটিপি বার্সেলোনা মাস্টার্স সরাসরি, বিকেল ৩টা, সনি ইএসপিএন একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি