ঢাকা, ২০১৯-০৫-২১ ০:৩১:৫০, মঙ্গলবার

শাস্তির আওতায় আসছে ফেনীর এসপি

নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন হয়রানি ও পরবর্তীতে তাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় অবহেলার দায়ে ফেনীর সোনগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) সাময়িক বরখাস্ত করার পর এবার শাস্তির আওতায় আনা হচ্ছে ফেনীর পুলিশ সুপারকে। বিষয়টি পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা যায়। পুলিশ সদর দফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-মিডিয়া) মো. সোহেল রানা জানিয়েছেন, নুসরাত হত্যার পর গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে পুলিশ ‍সুপারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তার বিষয়টি বর্তমানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় রয়েছে। শাস্তিমূলক ব্যবস্থার অংশ হিসেবে তাকেও একটি ইউনিটে সংযুক্ত করা হবে। নুসরাত হত্যার ঘটনায় সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে এখন রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি’র কার্যালয়ে যুক্ত করা হয়েছে। সহকারী মহাপরিদর্শক আরও জানান, বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে অভিযুক্ত এসআই (নিরস্ত্র) মো. ইউসুফকে খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয় এবং এসআই(নিরস্ত্র) মো. ইকবাল আহাম্মদকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় সংযুক্ত করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধেও নেওয়া হচ্ছে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা। সংযুক্ত ও বদলি এ দুটি ভিন্ন বিষয় বলে জানান,পুলিশের এই উর্ধতন কর্মকর্তা। সংযুক্তি হলো শাস্তিমূলক একটি ব্যবস্থা। এসময় কর্মকর্তাকে কোন দায়িত্ব দেওয়া হয় না। উল্লেখ্য, ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি গত ৬ এপ্রিল আলিম পরীক্ষা দিতে গেলে তাকে কৌশলে মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে কেরসিন ঢেলে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে চাপ দিলেও কোন ফল না হওয়ায় অধ্যক্ষের পক্ষে মুখোশ পরা চার-পাঁচজন তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত। এমএস/কেআই  

কক্সবাজারে `কথিত বন্দুকযুদ্ধে` নিহত ১

কক্সবাজার শহরে `কথিত বন্দুকযুদ্ধে` একজন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তির নাম পরিচয় জানা যায়নি। শনিবার ভোরের দিকে কক্সবাজার শহরের কলাতলীর কাটাপাহাড় এলাকা থেকে পুলিশ ও ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশসহ অস্ত্র এবং ইয়াবা উদ্ধার করে। তার বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর। সদর থানার ওসি খন্দকার ফরিদ উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, স্থানীয়দের কাছে দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। মাদক ব্যবসায়ীরা ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাতপরিচয় একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। টিআর/

এস আলম সিমেন্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতলো এফএসআইবিএল

চট্টগ্রামে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এস আলম সিমেন্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৯ এর শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডকে ৬ উইকেটে পরাজিত করে শিরোপা নিশ্চিত করেছে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এফএসআইবিএল)। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড তাদের নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান করে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড ১৭ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান করে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায়। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন আরিফ নেওয়াজ- ৪৫* (এফএসআইবিএল) ও সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন এফএসআইবিএল- এর মো. জিয়া উদ্দিন চৌধুরী। এছাড়াও ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট হন সাদ্দাম হোসেন (এফএসআইবিএল), সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করেন সাফায়েত আহমেদ (এফএসআইবিএল)। খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ করেন মো. মোর্শেদুল আলম, পরিচালক, এস আলম গ্রুপ। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে এফএসআইবিএল- এর চট্টগ্রামের আঞ্চলিক প্রধান মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান ও পি এস টু চেয়ারম্যান মো. আকিজ উদ্দিনসহ উভয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। একে//

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক কারবারি নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ ‍উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুদু মিয়া (৩৮) নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন। টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলার মেরিন ড্রাইভ এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র, ১৩ রাউন্ড কার্টুজ ও ৪ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত দুদু মিয়া টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া এলাকার সুলতান আহমদের ছেলে বলে জানা গেছে। তার বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্রসহ অর্ধ ডজনের বেশি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ওসি প্রদীপ কুমার দাস জানান, শুক্রবার রাতে আটক দুদু মিয়াকে নিয়ে মেরিন ড্রাইভ এলাকায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে গেলে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একে//

চট্টগ্রামে নেশাগ্রস্ত ব্যক্তির দায়ের কোপে নারীর মৃত্যু

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে নোশাগ্রস্তে এক ব্যক্তি দায়ের কোপে এক নারী গুরুতর যখম হয়ে মারা গেছে। ওই ব্যক্তির কোপে আর চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় ইফতারের কিছু সময় আগে নগরীরর উত্তর কাট্টলীর বড় কালীবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিশ্চিত করেছেন। নগরীর আকবর শাহ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন জানান, নিহত নারীর নাম সন্ধ্যা রানী, বয়স ৬০ বছর। আহত শান্তি নন্দী (৭০), দীপক  দত্ত (৪৮), টিংকু দত্ত (৪৫) ও প্রদীপ তালুকদারকে (৪০) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নেশাগ্রস্ত অভিযুক্ত সত্যজিত নামের ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। সত্যজিত এলাকার একটি ফার্মেসি চালান বলে জানা যায়। ওসি জসীম উদ্দিন বলেন, ‘সন্ধ্যায় সত্যজিত হঠাৎ দা নিয়ে নিজের বাসা থেকে বেরিয়ে আসে এবং রাস্তায় লোকজনকে এলোপাতাড়ি কোপাতে শুরু করে।’ পরে এলাকাবাসী পাঁচজনকে রক্তাক্ত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সন্ধ্যা রানীকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান ওসি। সত্যজিতের মানসিক সমস্যা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। দায়ের কোপে আহত রাজু বনিক হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় সাংবাদিকদের জানান, সত্যজিত ইয়াবায় আসক্ত। প্রায় সব সময় সে নেশাগ্রস্ত থাকত। ওই সময় সে নেশায় ছিল মনে হয়।   এমএস/এসএইচ/

কেরোসিন ছিটাতে ব্যবহৃত গ্লাসটি অধ্যক্ষের দফতর থেকে উদ্ধার

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যায় কেরোসিন ছিটাতে ব্যবহৃত গ্লাসটি উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক মো. শাহ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার প্রশাসনিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় অধ্যক্ষের দফতরের সামনের ওয়াল কেবিনেটের ভেতর থেকে বুধবার রাতে গ্লাসটি মামলার আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়। নুসরাত হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা আসামি শাহাদাত হোসেন শামীম, জাবেদ হোসেন ও যোবায়ের আহমেদকে নিয়ে রাতে ওই গ্লাস উদ্ধারে অভিযানে যায় পিবিআই। ওই তিন আসামি এর আগে আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তবে মামলায় অধিকতর তদন্তের জন্য বুধবার দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করে আরও এক দিনের রিমান্ডে নেয় পিবিআই। তদন্ত কর্মকর্তা জানান, আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ওই আসামিরা নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়ার সময় কেরাসিন ছিটানোর জন্য একটি গ্লাস ব্যবহার করার কথা বলেছিল। আর এর ভিত্তিতেই তাদের নিয়ে রাতে মাদ্রাসায় অভিযান চালানো হয়। প্রসঙ্গত, সোনাগাজীর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনেছিলেন চলতি বছরের আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফি। গত ২৬ মার্চ নুসরাতের মা শিরীনা আক্তার মামলা করার পরদিন সিরাজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই মামলা প্রত্যাহার না করায় গত ৬ এপ্রিল আলিম পরীক্ষার হল থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন দেয় বোরখা পরা চারজন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১০ এপ্রিল রাতে মারা যান নুসরাত। একে//

চট্টগ্রামে থ্যালাসেমিয়া দিবস পালিত

আজ বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস। সচেতনতার মাধ্যমে থ্যালাসেমিয়া নির্মূল করা সম্ভব। আর তাই থ্যালাসেমিয়া প্রতিরোধের জন্য বিয়ের আগেই বাধ্যতামূলক রক্ত পরীক্ষা করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন থ্যালাসেমিয়া প্রতিরোধ প্রচারণা বাংলাদেশ এর সাইন্টিফিক এডভাইজর ও মেন্টর অধ্যাপক ডা. শাহেদ আহমেদ চৌধুরী। বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস ২০১৯ উপলক্ষে থ্যালাসেমিয়া প্রতিরোধ প্রচারণা বাংলাদেশের আয়োজনে সিটিজি ব্লাড ব্যাংকের সহযোগীতায় বুধবার (৮ মে) চট্টগ্রাম নিউ মার্কেটস্থ বিপনি বিতানের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ আহ্বান জানান। উক্ত মানববন্ধনে ২০টিরও অধিক সংগঠন উপস্থিত ছিল। ডা. শাহেদ আহমেদ চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন,থ্যালাসেমিয়া এখন নিরব মহামারী। দেশে কোটির উপরে থ্যালাসেমিয়া বাহক রয়েছেন। যার কারণে প্রতিদিনই ২০ থ্যালাসেমিনায় আক্রান্ত অবস্থায় জন্মগ্রহণ করছে। তিনি বলেন, সচেতনতার মাধ্যমে রোগটি নির্মূল করতে হবে। বিয়ের আগে রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে দুইজন বাহকের বিয়ে রোধ করার মধ্য দিয়ে থ্যালাসেমিয়া মুক্ত বাংলাদেশ গড়া সম্ভব। তাই প্রত্যেকের শ্লোগান হওয়া উচিৎ অনাগত সন্তানের দায়িত্ব নিন। বিয়ের আগে রক্ত পরীক্ষা করিয়ে নিন। বাহক বাহক বিয়ে নয়। আর নয় রক্তচোষা থ্যালাসেমিয়া। তিনি উপস্থিত সংগঠনের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, তোমরা তরুণ। তোমরা এ্যাম্বাসিডর হিসেবে গড়ে তুলো এবং নিজের পরিবারের পাশাপাশি নিজের আত্মীয়স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, এলাকায় থ্যালাসেমিয়ার বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করো। একদিন থ্যালাসেমিয়া মুক্ত হবে বাংলাদেশ তোমাদের হাত ধরে। এতে আরও বক্তব্য দেন কাউছার, শোয়েবুল হক চৌধুরী, আরমান শরীফ, জাহিদুল ইসলাম,দৌলত ইকবাল,গাজী রাসেল,আবদুর রহমান, মোহাইমিনুল হক, মুশফিকুর রহমান,আবু সাইদ,সালাউদ্দীন,আবু হানিফ,রায়হান প্রমুখ। আআ/কেআই

চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষ: নিহত ২

চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদি ইউনিয়নে ট্রাকের সঙ্গে সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৭টার দিকে চাঁদপুর রায়পুর সড়কের লেবুতলা বালু মহল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন অটোচালক রফিক গাজী (৪০) ও যাত্রী মোজাম্মেল হোসেন (২৩)। নিহত চালক রফিক জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরপোয়া গ্রামের বাসিন্দা এবং যাত্রী মোজাম্মেল পঞ্চগড় জেলায় মো. শহীদুল ইসলামের ছেলে। তিনি চাঁদপুরে শ্রমিকের কাজ করতেন। চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে সকাল সাড়ে ৯টায় নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ট্রাক ও হেলপার পালিয়েছে গেছে। বালুবাহী ট্রাকটি চিহ্নিত করে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি। এমএইচ/

বান্দরবানে জেএসএস কর্মীকে গুলি করে হত্যা

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বান্দরবান সদরের রাজবিলা সন্ত্রাসীদের গুলিতে জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) এক কর্মী নিহত হয়েছেন। এ সময় একই সংগঠনের অপর এক কর্মীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ইউনিয়নের তাইংখালীতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম বিনয় তঞ্চঙ্গ্যা (৩৫)। তার বাড়ি রাঙ্গামাটি জেলায়। তিনি তাইংখালী বাজারের মুদির ব্যবসায়ী ছিলেন। স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য বিস্তারের দ্বন্দ্বে সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের তাইংখালী বাজারে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এ সময় পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) কর্মী বিনয় তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করে। অন্যদিকে রাজবিলা ইউনিয়নের রাবার বাগানের শৈলতনপাড়া থেকে আরেক জনসংহতি সমিতির কর্মীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা। অপহৃতের নাম পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যা (৩২)। এ ঘটনায় ঘটনাস্থলসহ আশপাশের এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। ইউপি সদস্য মংএ নু মারমা ও স্থানীয়রা জানান, মুদি দোকানি বিনয় তঞ্চঙ্গ্যা রাতে তার দাদা শ্বশুরের বাসায় ছিলেন। সেখান থেকে সন্ত্রাসীরা তাকে ডেকে নিয়ে খুব কাছ থেকে গুলি করে হত্যা করে। অন্যদিকে একই সময়ে পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনও কেউ বলতে পারছে না। জনসংহতি সমিতির বান্দরবান জেলা শাখার সভাপতি উছোমং মারমা বলেন, দুজনই তাদের সক্রিয় কর্মী। আরাকান লিবারেশন আর্মি (এএলপি) সমর্থিত স্থানীয় মগ বাহিনী নামের একটি গ্রুপ এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানতে পেরেছি।

কুবিতে পিআইবির তিন দিনব্যাপী কর্মশালা

প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) এর আয়োজনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস) সদস্যদের নিয়ে তিন দিনব্যাপী ‘সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ’ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সমিতির সাধারণ সম্পাদক তানভীর সাবিকের উপস্থাপনায় এবং কোর্স সমন্বয়ক ও পিআইবির প্রশিক্ষক পারভীন সুলতানা রাব্বীর সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের ভার্চুয়াল ক্লাস রুমে অংশগ্রহণ কারীদের সনদপত্র প্রদানের মাধ্যমে তিন দিনব্যাপি এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। এসময় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মো. সাদেকুজ্জামান, বাংলাভিশন টেলিভিশনের সিনিয়র বার্তা সম্পাদক রুহুল আমীন রুশদ, সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জাহিদুল ইসলাম এবং সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। কেআই/

বাঁচতে চায় তানিয়া

তানিয়া আক্তার মুন্নি (১৫)। দাখিল পরীক্ষার্থী। লেখাপড়া করে সুন্দর জীবনের পথে এগিয়ে যাওয়ার কথা অথচ সেই সময় দুই পায়ের জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। ক্রেসের ওপর ভর দিয়ে চলতে ফিরতে হয় কিশোরী তানিয়ার। দুপায়ের অসহ্য ব্যথার ফলে তার লেখাপড়া বন্ধ রয়েছে। আর্থিকভাবে অসচ্ছলতার কারণে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারছে না তানিয়া। তানিয়ার বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলার সন্তোষপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের কুতুব মুহুরির বাড়ি। তার পিতার নাম মোহাম্মদ মাকসুদ আলম। তিনি উপজেলার সন্তোষপুর আদর্শ দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী। চিকিৎসকরা জানিয়েছে, তানিয়া দুপায়ে জটিল রোগে আক্রান্ত। তার পায়ে দ্রুত অপারেশন করাতে হবে। এজন্য তাকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় অথবা ভারতে নিয়ে যেতে হবে। এ শিক্ষার্থীর পায়ের অবস্থা দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। বর্তমানে তানিয়া রাজধানীর কল্যাপুরের স্পেন অর্থোপেডিক জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। দুপায়ের পায়ের হাড় ক্ষয় ও কোমড়ের জয়েন্ট নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে চিকিৎসাধীন রয়েছে। প্রতিদিন ঔষধ বাবদ দশ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। দুই পায়ের যন্ত্রণায় ঘুমাতে পারছে না। মেয়েটির বাবা সমাজের বিত্তবানদের কাছে মেয়ের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে তানিয়ার বাবা। এদিকে দু`পায়ের অসহ্য ব্যথার কারণে রাতের পর রাত আর কাটছে নির্ঘুম রাত স্কুল দাখিল শিক্ষার্থী এই মেয়ে তানিয়ার পিতা মাকসুদ আলম জানিয়েছেন, আমার মেয়ে দুই পায়ে জটিল রোগে আক্রান্ত। তার পায়ে অপারেশন করাতে হবে। এই চিকিৎসার জন্য ভারতে নিয়ে যেতে হবে। এ জন্য প্রয়োজন প্রায় ১০ লাখ টাকা। মেয়ের চিকিৎসার চালিয়ে যাওয়ার মতো আর্থিক অবস্থা আমার নেই। আর তাই আমার আদরের মেয়েকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানদের প্রতি এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। বাঁচার আকুতি জানিয়ে তানিয়া আক্তার মুন্নি বলেন, দুপায়ের অসহ্য ব্যথায় আমি চলতে ফিরতে পারি না। এই কষ্ট আমি সহ্য করতে পারছি না। আমি বাঁচতে চাই। আমি এই ব্যথা থেকে মুক্তি চাই। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: মোহাম্মদ মাকসুদ আলম, মোবাইল- ০১৮২৩৯৮৪৫১৪ (বিকাশ, রকেট), ব্যাংক এশিয়া হিসাব নং- (১০৮৩৪১৫০০৯৪৭২) আকবর হাট শাখা (সন্দ্বীপ, চট্টগ্রাম)।কেআই/  

সন্দ্বীপে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে সারিকাইত প্লাবিত

ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধ ছিড়ে সন্দ্বীপ উপজেলার সারিকাইত ইউনিয়নের  ১নং ওয়ার্ড প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিক ভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিরূপণ করা যায়নি।   শনিবার সকাল থেকে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে সন্দ্বীপে দমকা হাওয়া শুরু হয়। প্রচণ্ড বাতাসে বিভিন্ন এলাকায় গাছপালা ভেঙ্গে পড়ে। এসময় নদীতে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি মাত্রায় পানি বৃদ্ধি পায়। দুপুর ১২টায় জোয়ারের পানির স্রোতে বেড়িবাঁধ ছিড়ে এলাকার প্রায় ২৫টি ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়। ৬টি পুকুরে লবনাক্ত পানি ঢুকে মাছ ভাসিয়ে নেয়। প্রায় ৫০ একর জমির ফসল জোয়ারের পানিতে ডুবে যায়। সবকিছু মিলিয়ে উপজেলায় প্রায় দশ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ইউপি চেয়ারম্যানদের সূত্রে জানাযায়। বাতাসের তান্ডবে সারিকাইত ইউনিয়নের ১ ও ৫ নং ওয়ার্ডে বেড়ীবাঁধের বাইরের ৮টি ও মগধরা ইউনিয়নের ৯টি ঘর ভেঙে যায়। কয়েকটি এলাকায় গাছপালা উপড়ে পড়ে যায়। সারিকাইত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ফখরুল ইসলাম পনির বলেন,সারিকাইত ২ ওয়ার্ডের ৮টি কাঁচাঘর ভেঙে যায়। এছাড়া এখানে তেমন কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। সারিকাইত ইউনিয়নের গত দুই বছর ধরে নিয়মিত ছিড়ে লোকালয়ে পানিতে প্লাবিত হয়। টেকসই মেরামত না করায় বারবার একই অংশ দিয়ে পানি ঢুকে ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। স্থানীয় বাসিন্দা মাষ্টার বশর বলেন, পরপর দুইবার ভাঙ্গার পরেও বেড়িবাঁধের এই অংশ ঠিকমত মেরামত করা হচ্ছে না। গতবছর আমার ঘরবাড়ি ভাসিয়ে নিয়েছে। এবছর দুপুর থেকে ৪টা পর্যন্ত পানিবন্দী হয়ে কাটিয়েছি। বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন উরিরচরে ১২টি ঘর ভেঙে গেছে। তবে আগে থেকে সতর্ক থাকায় মানুষ ও গবাদিপশুর কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানিয়েছেন ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহিম। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, সন্দ্বীপের প্রায় ১৯২টি ঘরবাড়িসহ প্রায় ৪০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে আশ্রয়ণসহ ত্রাণ সামগ্রী প্রদানসহ যাবতীয় সকল সুযোগ সুবিধা দেওয়ার ঘোষণা করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুল হুদা। সন্দ্বীপের সাংসদ মাহফুজুর রহমান মিতা ক্ষতিগ্রস্ত বেড়ীবাঁধ এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দ্রুত ভাঙ্গা অংশ মেরামত করা হবে। কেআই/

প্রধানমন্ত্রী দেশের সব অঞ্চলে সুষম উন্নয়নে বিশ্বাস করেন

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেছেন,প্রধানমন্ত্রী দেশের সব অঞ্চলে সুষম উন্নয়নে বিশ্বাস করেন। বুধবার বিকালে নগরীর জামালখানে চট্টগ্রাম সিনিয়রস ক্লাবে চট্টগ্রামের সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। বিপ্লব বড়ুয়া বলেন,‘চট্টগ্রামে কর্ণফুলী টানেল হচ্ছে, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল লাইন হচ্ছে এবং প্রধানমন্ত্রী বলেছেন মিরসরাই থেকে কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ হবে। যা চট্টগ্রামবাসীর কল্পনার অতীত ছিল। প্রধানমন্ত্রী জানেন, কানেকটিভিটি যত দ্রুত হবে, উন্নয়ন সমৃদ্ধি তত ভালো হবে। ঢাকায় উন্নয়ন বেশি হয়, চট্টগ্রামে উন্নয়ন কম হয়, এধরণের ধারণা এখন অবাস্তব।’ প্রধানমন্ত্রী দেশে সুষম উন্নয়নে বিশ্বাস করেন উল্লেখ করে বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, ‘স্থান বা ব্যক্তি ভেদে কোনো উন্নয়নের বৈষম্য প্রধানমন্ত্রী করেন না। তিনি তিনি চান দেশের সব মানুষের কল্যাণ হোক। আগে রাজনৈতিক বিবেচনায় গোপালগঞ্জকে বঞ্চিত করা হত। কিন্তু এখন বগুড়ায়ও অনেক উন্নয়ন হচ্ছে।’ চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনে চলমান মেগা প্রজেক্ট, একাধিক ফ্লাইওভার নির্মাণ এবং পতেঙ্গা সৈকতের সৌন্দর্য বর্ধনের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী। “মেগা প্রজেক্ট হচ্ছে চট্টগ্রামে। একাধিক বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে। ঢাকার চেয়ে চট্টগ্রামের মানুষ বেশি উপকৃত হচ্ছে। ঢাকায় আর সেভাবে উন্নয়নের জায়গা নেই। দেশের গণমাধ্যম অবাধ স্বাধীনতা ভোগ করছে বলেও দাবি করেন বিপ্লব। কোনো সাংবাদিক আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে চিকিৎসা সংকটে পড়লে সরাসরি তার সঙ্গে যোগাযোগের আহ্বান জানান তিনি। “প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী হিসেবে আমার কাজের অংশ এটি। আমাকে জানালে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।” সভায় প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন বলেন, “দেশের গণমাধ্যম একটি ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। গণমাধ্যমের সংখ্যা বেশি বলে নয়, দেশে বিজ্ঞাপনের যে বাজার সেটি ভাগ হয়ে যাওয়ায় এটা হচ্ছে। এখন গুগলে, ফেসবুকে, ইয়াহুতে এমনকি বিদেশেও বিজ্ঞাপন চলে যাচ্ছে। “এটা থেকে উত্তরণের পথ নির্ধারণে দেশের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাই কাজ করছেন। আশাকরি একটা পথ বের হবে।" সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমুদ্দিন শ্যামল, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বিএফইউজের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ এবং সিনিয়রস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী। কেআই/

এপেক্স ক্লাবের উদ্যোগে মে দিবস পালিত

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এপেক্স ক্লাব অব বাংলাদেশের উদ্যোগে নোয়াখালীতে মহান মে দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে নোয়াখালী জেলা শাখার উদ্যেগে সকাল সাড়ে ৯ টায় এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বুধবার সকালে মহান মে দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা বের করে। নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে জেলা শহর মাইজদীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। এর আগে প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে মে দিবসের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় যুব সম্প্রসারণ সুনাগরিকত্ব বিষয়ক পরিচালক এমএ সায়েম টিপু। শোভা যাত্রায় উপস্থিত ছিলেন, ক্লাবের জাতীয় সভাপতি এম এ কাইয়ুম চৌধুরী, সহ-সভাপতি নিজাম উদ্দিন পিন্টু, সাবেক জাতীয় সভাপতি সৈয়দ নূর রহমান, জাতীয় সেবা পরিচালক মোহাম্মদ ইলিয়াস জসিম,  জেলা গভর্নর (আর্ট) কামরুল হক,  জেলা ও উপজেলার এপেক্সিয়ানরা।   কেআই/

কুতুবদিয়ায় ‘গোলাগুলিতে’ ২ জলদস্যু নিহত

কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলায় দু’পক্ষের মধ্যে কথিত গোলাগুলিতে ২ জলদস্যু নিহত হয়েছেন। কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিদারুল ফেরদাউস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার আলী আকবর ডেইল ফতেয়ালি সিকদারপাড়া সংলগ্ন লুইজ্জার বিলে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশিয় তৈরি বন্দুক, ৪০০ পিস ইয়াবা ও চার রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন- উপজেলার দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের শাহা আলম সিকদারপাড়ার মৃত মৌলভী সৈয়দুল আলমের ছেলে এরফান হোসেন প্রকাশ এরফান মাঝি (৩২) ও লেমশীখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ লেমশীখালীর ছামিরাপাড়ার এনামুল হকের ছেলে নুর হোসেন (২৬)। তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, দস্যুতা, অস্ত্র, মাদকসহ আরও বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ওসি দিদারুল ফেরদাউস জানান, মঙ্গলবার ভোরে লুইজ্জার বিলে দুই দল দস্যুর মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গুলিবিনিময় শুরু হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গেলে বিল সংলগ্ন রাস্তার পাশে দুই ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দস্যুরা পালাতে থাকেন। এ সময় পুলিশ তাদের পিছু নিলে একপর্যায়ে তাদের ওপর গুলি ছোড়েন দস্যুরা। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে উভয়পক্ষের প্রায় ৩৫ রাউন্ড গুলিবিনিময় হয়। পরে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে গুলিবিদ্ধ দুইজনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাদের ‍মৃত ঘোষণা করেন। একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি