ডুফা-ওয়ালটন সিক্স এ সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট কাল
Ekushey Television

ডুফা-ওয়ালটন সিক্স এ সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট কাল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০৫ এএম, ৭ মার্চ ২০১৯ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১১:১৭ এএম, ৭ মার্চ ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ডুফা-ওয়ালটন সিক্স এ সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট কাল

ডুফা-ওয়ালটন সিক্স এ সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট কাল

ডুফা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) সিক্স-এ-সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল শুক্রবার। টুর্নামেন্ট সফল করতে এগিয়ে এসেছে দেশীয় খেলাধুলার পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। এছাড়া পাওয়ার্ড বাই হিসেবে থাকছে আইসক্রিম ব্র্যান্ড ইগলু।

খেলা শুরু হবে শুক্রবার সকাল ৮টায়। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও সাংসদ নাঈমুর রহমান দুর্জয় টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করবেন। বিশেষ অতিথি থাকবেন জগন্নাথ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. অসীম কুমার সরকার।

দিনব্যাপী এ আয়োজনে অংশ নিচ্ছে ডুফার ঢাকা অঞ্চলের ৬টি টিম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল মাঠে খেলাটি দু’টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় এ গ্রুপে মুখোমুখি হচ্ছে খিলগাঁও ডায়নামাইটস, শের-এ- মোহাম্মাদপুর এবং উত্তরা লায়ন্স।

অপরদিকে গ্রুপ বি তে অংশ নিচ্ছে বনশ্রী এভেঞ্জারর্স, মিরপুর চাইগার্স এবং রমনা রাইডার্স। এছাড়া ওয়ালটন করপোরেট টিমের সঙ্গে ডুফা সদস্যদের মধ্যেও একটি প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

ডুফার আয়োজক কমিটির আহবায়ক ড. মাহবুবুর রহমান লিটু, ক্রীড়া সম্পাদক ও সদস্য সচিব বায়েজিদ সিকদার এবং সহ-আহ্বায়ক সুজন মাহমুদ জানান, ডুফার সব সদস্যদের বয়স ৪২-৪৩ বছর। কিন্তু এ বয়সেও প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে সদস্যদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে। অনেক টিম বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে ভালো ক্রিকেট খেলতো এমন বন্ধুদের দলে ভেড়ানোর জন্য ঢাকার বাইরে থেকেও বন্ধুদের দলে ভেড়াচ্ছেন।

টুর্নামেন্টকে সফল করতে আয়োজকরাও সর্বাত্মক চেষ্টা করছেন। শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন খেলোয়াড়, কোচ এবং ম্যানেজাররা। টুর্নামেন্টকে সফল করতে ড্যানিশ, মি. নুডুলস, টেস্ট্রিট্রিট, অলটাইম, অরভিল এগ্রো ক্যামিকেল, জেড এন্ড কে ইন্ডাস্ট্রিজ, অলওয়েল বিডি লিমিটেড এবং ভাইসব ডিজিটাল প্রভৃতি প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এসেছে।

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৯৯৫-৯৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের সংগঠন ডুফা (ঢাকা ইউনিভার্সিটি ফ্রেন্ডস অ্যালায়েন্স) ইতিমধ্যে নানাবিধ সামাজিক সচেতনতা ও সামাজিক দায়বন্ধতামূলক কাজ করে প্রশংসিত হয়েছে।