মাহফুজুর রহমানের গান নিয়ে ফেইসবুক উত্তাল
Ekushey Television

মাহফুজুর রহমানের গান নিয়ে ফেইসবুক উত্তাল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১২ এএম, ৮ জুন ২০১৯ শনিবার

মাহফুজুর রহমানের গান নিয়ে ফেইসবুক উত্তাল

মাহফুজুর রহমানের গান নিয়ে ফেইসবুক উত্তাল

কেউ কেউ মনে করছেন মাহফুজুর রহমান একজন সফল ব্যক্তি। আবার কেউ কেউ মনে করছেন মাহফুজুর রহমান এক হাসির পাত্রে পরিণত হয়েছেন। তবে সব ছাড়িয়ে এখন মাহফুজুর রহমানের একক গানের অনুষ্ঠান নিয়ে ফেইসবুক উত্তাল রয়েছে।

স্যাটেলাইট টেলিভিশন এটিএন বাংলায় ঈদের অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমানের একক গানের অনুষ্ঠান চ্যানেলটিতে শুক্রবার রাত সাড়ে দশটায় প্রচারিত হয়। প্রচারের শুরু থেকেই গানের অনুষ্ঠানটি নিয়ে বেশ আলোচনা ও সমালোচনায় সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক সরগরম। এই ঈদে মাহফুজুর রহমানের এ অনুষ্ঠান নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে যা অন্য কোন চ্যানেলের কোন অনুষ্ঠান নিয়ে হয়নি।

প্রতি বছরের মতো এবারের ঈদুল ফিতরেও ভক্তদের গানের অনুষ্ঠান নিয়ে হাজির হন এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান। ২০১৬ সালে মাহফুজুর রহমান ‘হৃদয় ছুঁয়ে যায়’ শিরোনামে প্রথম একক গানের অনুষ্ঠান করেন। ২০১৭ সালের ঈদুল ফিতরে প্রচারিত হয় তাঁর গান নিয়ে অনুষ্ঠান ‘প্রিয়ারে’। একই বছর তাঁর একক সংগীতানুষ্ঠান ‘স্মৃতির আলপনা আঁকি’ ব্যাপক আলোচিত হয়। গত বছর তাঁর একক সংগীতানুষ্ঠান ‘বলো না তুমি কার’ এটিএন বাংলায় প্রচারিত হয়। তাঁর কণ্ঠে একক সংগীতানুষ্ঠানটি প্রচারিত হওয়ার পর তা ভাইরাল হয়। শুধু ভাইরালেই শেষ নয়, গান প্রচারিত হওয়ার পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় আলোচনা।

এরই মধ্যে ড. মাহফুজুর রহমানের অনেক ভক্ত গড়ে উঠেছে। যারা তাঁর গানের অনুষ্ঠানের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। এর আগে গত ৪ জুন মাহফুজুর রহমানের গানের সময় নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে রাজশাহীতে মানববন্ধন করেছেন তাঁর ভক্তরা।

শুক্রবার মাহফুজুর রহমানের গান চলাকালীন সময়ে ফেইসবুকে রইয়ান নামের এক ব্যক্তি লেখেন, ‘মাহফুজ ভাইয়ের গান শুনলে মন ভালো হয়ে যায়।’ মাসুদ নামের এক সাংবাদিক তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে গানের অনুষ্ঠানটি দেখেন। অনুষ্ঠান দেখাকালীন পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি ছবি ফেইসবুকে দিয়ে লেখেন, ‘আমার মাহফুজ ভাইয়ের গানের সময় মনোযোগী হয়ে যাই।’

এ ছাড়াও বেশ কয়েকজন মাহফুজের অনুষ্ঠানের ছবি ফেইসবুকে দিয়ে হাস্যরস করেন। যদিও মাহফুজুর রহমান এসব কিছু কানে নেন না বলে বেশ কেয়েকবার জানিয়েছেন। মানুষের শুরুর কোন বয়স নেই বলে মনে করেন মাহফুজুর রহমান। তিনি বলেন, ‘বিশেষ একটা শ্রেণি আছে, যারা সব সময় আমার পেছনে লেগে থাকে। আমি ভালো করলেও পেছনে কথা বলে, আবার খারাপ কিছু করলেও করে। আমি ব্যক্তিগতভাবে ফেসবুক পছন্দ করি না। ফেসবুকের ইতিবাচক অনেক ব্যাপার আছে। কিন্তু তরুণ প্রজন্ম এটার অপব্যবহার বেশি করছে।’

মাহফুজুর রহমানের গাওয়া উল্লেখযোগ্য গানগুলো হলো ‘স্মৃতির আলপনা আঁকি’, ‘কত সুন্দর তুমি’, ‘একা থাকার যন্ত্রণা’, ‘একটা মন দাও’। গান গাওয়ার পাশাপাশি মাহফুজুর রহমান ‘স্মৃতির আলপনা আঁকি’ শিরোনামে একটি উপন্যাসও প্রকাশ করেছেন। এ ছাড়া ‘ভালোবাসি তোমাকে’, ‘আরো সাবধান’, ‘বিদ্রোহ চারিদিকে’ এই চলচ্চিত্রগুলোর গল্প তাঁর লেখা ছিল।

এমএস/আরকে