ঢাকা, ২০১৯-০৬-২০ ১৯:০৮:২৪, বৃহস্পতিবার

হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞায় স্থগিত শিল্পী সংঘের নির্বাচন

হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞায় স্থগিত শিল্পী সংঘের নির্বাচন

শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য অভিনয় শিল্পী সংঘের নির্বাচন স্থগিত করেছেন আদালত। গতকাল বুধবার শেখ মো. এহসানুর রহমান, আব্দুল্লাহ রানা ও নূর মুহাম্মদ রাজ্যের করা রিটের প্রেক্ষিতে আজ সিনিয়র সহকারী জজ মোহাম্মাদ শফি নির্বাচন স্থগিতের আদেশ দেন। পাশাপাশি এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার অভিনেতা খাইরুল আলম সবুজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে তেমন কিছু জানেন না উল্লেখ করে শিল্পী সংঘের সভাপতি শহিদুল আলম সাচ্চু বলেন, আমরা দীর্ঘ একমাস ধরে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। একেবারে শেষ মুহুর্তে এসে নির্বাচন স্থগিত নিয়ে আদালতের নির্দেশনা বিষয়ে কোনো ধরনের কাগজ এখনো হাতে পাইনি। সবাই নির্বাচন নিয়েই ব্যস্ত রয়েছে। কেন স্থগিত করা হলো কাগজ পেলে বলতে পারবো। রিটকারী শেখ এহসানুর রহমান বলেন, এ নির্বাচন ‘সমাজসেবা অধিদফতরের অনুমোদিত সংঘের যে গঠনতন্ত্র- তা ভায়োলেশন করে হচ্ছে। তিনি বলেন, আমরা অধিদফতরের একাধিকবার চিঠি দিয়েছি। চার মাস যাবত বিগত কমিটির সঙ্গে আলোচনা করেছি। সর্বশেষ আন্তঃবৈঠক হয়েছে। কিন্তু কোনও সমাধান হয়নি। এর ফলে আমরা আদালতের কাছে আবেদন করেছি। আমাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই অস্থায়ী স্থগিতাদেশ দেওয়া হলো। এবং জানতে চাওয়া হয়েছে, নির্বাচন নিয়ে কেন স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হবে না গঠনতন্ত্র প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তফসিলে বলেছে ১৫-এর ৬ ধারা অনুযায়ী নির্বাচন ঘোষণা করা হয়েছে। এতে উল্লেখ আছে যে, একটি সাধারণ সভার মধ্যমে অন্তবর্তীকালীন ও নির্বাচনকালীন কমিটি গঠন হবে। অথচ সাধারণ সভা ছাড়াই আগের কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক কমিটি গঠন করেছেন।’ এমনকি গোপনে অধিদফতর থেকে কমিটির মেয়াদ ২০২০ পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া হয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। এদিকে শিল্পী সংঘের সর্বশেষ তালিকা থেকে জানা যায়, এবারের নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৬শ’। ৫২ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন এবার। সেখান থেকে প্রাপ্ত ভোটে নির্বাচিত হবেন ২১ জন। আগামিকাল সেগুনবাগিচায় জাতীয় শিল্পকলা একাডেমিতে এ নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। আই/এসি  
কাল শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব

প্রথমবারের মতো ঢাকায় শুরু হচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব ২০১৯ । আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২০ জুন) থেকে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সাতদিনব্যাপী এই উৎসবে বাংলাদেশসহ ৭টি দেশ অংশ নিচ্ছে। সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এক সংবাদ সস্মেলনে এই তথ্য জানান। তিনি জানান, বাংলাদেশসহ এ উৎসবে আরও অংশ নিচ্ছে চীন, রাশিয়া, ফ্রান্স, ভারত, ভিয়েতনাম ও নেপাল। বাংলাদেশের দুটি দল এবং আমন্ত্রিত দেশগুলোর ৬টি দল এতে নাটক প্রদর্শনী করবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রথমবারের মতো দেশে আয়োজিত এই নাট্যোৎসবের উদ্দেশ্য হচ্ছে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চাকে আরও গতিশীল ও বেগবান করা। এক বছর অন্তর অন্তর সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসবের আয়োজন করা হবে। যা এ বছর থেকেই শুরু হচ্ছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে গতকাল(১৮ জুন) দুপুরে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল, শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। উৎসব পরিচালক দেব প্রসাদ দেবনাথ উৎসবের বিস্তারিক অনুষ্ঠানমালা উপস্থাপন করেন। প্রতিমন্ত্রী খালিদ বলেন, প্রথমবারের মতো এই উৎসব বাস্তবায়ন করবে শিল্পকলা একাডেমি, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন ও ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইন্সটিটিউট। তিনি বলেন, দেশের নাট্যাঙ্গণের সংগঠনগুলোর নাট্যজন ও নাটকের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্টদের সার্বিক সহযোগিতার কারণেই খুব স্বল্প সময়ের পরিকল্পনায় মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় এই উৎসব আয়োজন করা হচ্ছে। এই উৎসব আমাদের দেশের নাট্যকর্মী ও নাট্যনির্মাতাসহ সংশ্লিষ্টরা অংশ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের দলের সাথে নিজেদের কাজের উন্নয়ন ও পরিচিতি লাভ করতে পারবেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় উৎসবের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। নাট্যোৎসব উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার প্রধান মিলনায়তনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল। উদ্বোধনী দিনে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় বাংলাদেশের ধৃতি নৃত্যালয় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘মায়ার খেলা ’নাট্যগীতি পরিবেশন করবে। আরকে//

২১ জুন নেতা হতে লড়বেন অভিনেতারা

আগামী ২১ জুন অনুষ্ঠিত হবে অভিনয়শিল্পী সংঘের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া নির্বাচনে এবার ২১টি পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ৫২ জন প্রার্থী। এর মধ্যে একজন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচন উপলক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার তারিখ ছিল ২২ মে। এরপর গত ২৭ মে প্রকাশ করা হয় প্রার্থী তালিকা। ২৯ মে পর্যন্ত প্রার্থী প্রত্যাহারের সুযোগ দেওয়া হয় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে। এবার চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনজন প্রার্থী। তারা হলেন- আশিকুল ইসলাম খান, মো. মিজানুর রহমান ও শহীদুজ্জামান সেলিম। সহসভাপতি পদে নির্বাচন করবেন- আজাদ আবুল কালাম, আহসানুল হক মিনু, ইউজিন ভিনসেন্ট গোমেজ, ইকবাল বাবু, তানিয়া আহমেদ ও দিলু মজুমদার। সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন- আহসান হাবীব নাসিম ও মো. আবদুল হান্নান। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন- আশরাফ কবীর, আনিসুর রহমান মিলন, একেএম আমিনুল হক আমীন, রওনক হাসান ও সুমনা সোমা লড়বেন। এদিকে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন লুৎফর রহমান জর্জ। অন্যদিকে অর্থ সম্পাদক পদে মুহাম্মদ নুর এ আলম নয়ন ও মাঈন উদ্দিন আলম। দপ্তর সম্পাদক পদে ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর, আরমান পারভেজ মুরাদ, গোলাম মাহমুদ ও শেখ মিরাজুল ইসলাম। অনুষ্ঠান সম্পাদক পদে- জিনাত সানু স্বাগতা, পাভেল ইসলাম ও রাশেদ মামুনুর রহমান অপু, আইন ও কল্যাণ সম্পাদক পদে মম শিউলি, শামীমা ইসলাম তুষ্টি ও শিরিন আলম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে লড়বেন- প্রাণ রায়, শফিউল আলম বাবু ও শহীদ আলমগীর। তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন মো. সিরাজুল ইসলাম ও মো. সুজাত হোসেন শিমুল।এ ছাড়া কার্যনির্বাহী পদে প্রার্থী হয়েছেন ২১ জন। তারা হলেন- খালিদ আহমেদ সালেহীন, জাকিয়া বারী মম, তারেক মাহমুদ, নুরুন নাহার বেগম, রেজাউল করিম সরকার, বন্যা মির্জা, নাদিয়া আহমেদ, মাসুদ আলম তানভীর, মাহাদী হাসান পিয়াল, মুনিরা বেগম মেমী, মো. ওয়াসিম হাওলাদার, মো. জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, মো. মাহাবুবুর রহমান মোল্লা, সনি রহমান, শামস ইবনে ওবায়েদ, শাহ মোহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক, সামসুন নাহার শিরিন ও সেলিম মাহবুব।২১ জুন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে হবে এই নির্বাচন। ভোটগ্রহণ শুরু হবে সকাল ৯টায়। চলবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। ওইদিন রাতেই নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ করা হবে। এসএ/  

আজ টেলিভিশনের পর্দায় দেখবেন

কোট পরা ভদ্রলোক :একুশে টিভিতে আজ রাত ১০টায় প্রচার হবে নাটক ‘কোট পরা ভদ্রলোক’। অভিজাত পোশাকে সাধারণ মানুষের মনোযোগ কেড়ে নেওয়া এক যুবকের নানা ঘটনা নিয়ে হাস্যরসাত্মক গল্পের এ নাটকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন সাজিন আহমেদ বাবু। নাটকটিতে অভিনয় করেছেন- মোশাররফ করিম, প্রকৃতি, ইরেশ যাকের, রোবেনা রেজা জুঁই প্রমুখ। সেদিনও বিকেল ছিল : চ্যানেল আইতে আজ বিকেল সাড়ে ৪টায় প্রচার হবে টেলিছবি ‘সেদিনও বিকেল ছিল’। পান্থ শাহরিয়ারের রচনায় টেলিছবিটি পরিচালনা করেছেন খন্দকার আলমগীর। এতে প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন আফজাল হোসেন ও সুমাইয়া শিমু। আরও অভিনয় করেছেন সেতু, মুনিয়া প্রমুখ। মনের গহিনে কে ছায়া ফেলে, তার কী চাওয়া-পাওয়া, জীবনদর্শন- কখনও কখনও এমন অনেক প্রশ্নের মুখোমুখি হয়। সেদিনও বিকেল ছিল টেলিছবির গল্পে আছে এমনই কিছু প্রশ্নের অনুসন্ধানী মানুষের নানা ঘটনা। প্রেমের দুষ্টচক্র : এটিএন বাংলায় আজ রাত ৯টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে নাটক ‘প্রেমের দুষ্টচক্র’। শফিকুর রহমান শান্তনুর রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন কায়সার আহমেদ। অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন, নিলয়, প্রাণ রায়, অহনা, তাসনুভা তিশা, ফারহানা মিলি প্রমুখ। ঘটনাচক্রে তিন বন্ধুর খারাপ কাজে জড়িয়ে যাওয়া নিয়ে নাটকের কাহিনী। এতে দেখা যাবে শফিকের একমাত্র শখ অসাধু উপায়ে মেয়েদের ফোন নম্বর সংগ্রহ করা। অন্য বন্ধু রনি বিবাহিত। কিন্তু তার স্ত্রী সুহি সবসময় রনিকে অকারণে সন্দেহ করে। একসময় সে বাধ্য হয়ে অন্য মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ায়। তৃতীয় বন্ধু রাজু ঠগবাজ স্বভাবের। একের পর এক মেয়ের সঙ্গে প্রেম করে অর্থ আত্মসাৎ করে। মাধবীলতা : এ নাটকে প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন শ্যামল মাওলা ও মম। এনটিভিতে আজ রাত ৮টা ৫ মিনিটে নাটকটি প্রচার হবে। এটি রচনা করেছেন মুনতাহা বৃত্তা এবং পরিচালনা করেছেন হাবিব শাকিল। এতে আরও অভিনয় করেছেন আরফান মিতুল, বন্যা প্রমুখ। সানগ্লাস শফিক : এ নাটকের প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান ও নাবিলা ইসলাম। বাংলাভিশনে আজ বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটে নাটকটি প্রচার হবে। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন আদর সোহাগ। আরও অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু, আরফানসহ অনেকে। সানগ্লাস শফিক নামে পরিচিত এক স্বপ্ন বিলাসী যুককের নানা ঘটনা নিয়ে নাটকের গল্প। টকলেস মোখলেস : নাটকটিতে অভিনয় করেছেন অ্যালেন শুভ্র ও তানজিকা আমিন। আজ রাত ৮টা ৩০ মিনিটে দীপ্ত টিভিতে এটি প্রচার হবে। ‘টকলেস মোখলেস’ রচনা করেছেন মোহাইমেনুল নিয়ন এবং এটি পরিচালনা করেছেন জাহিদুল ইসলাম জাহিদ। ফার্মগেট : নাটকটিতে অভিনয় করেছেন তানজিন তিশা ও তৌসিফ মাহবুব। আজ রাত ১০টায় আরটিভিতে প্রচার হবে নাটকটি। এটি রচনা করেছেন দয়াল সাহা এবং পরিচালনা করেছেন তপু খান। এতে আরও অভিনয় করেছেন আবদুল্লাহ রানা, স্মরণ সাহা, রিতু, নাসির প্রমুখ। নাটকের কাহিনী গড়ে উঠেছে ভবিষ্যৎ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে ফার্মগেট এলাকায় কোচিং করতে যাওয়া কয়েকজন শিক্ষার্থী নিয়ে। কিন্তু তাদের মধ্যে কারও কারও জীবন বদলে যেতে শুরু করে, ক্যারিয়ারের চেয়ে জীবনসঙ্গী নির্বাচন করতে গিয়ে। ঝগড়া চলছে : এ নাটকে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাদিয়া নদী ও সজল। এসএ টিভিতে আজ রাত সাড়ে ৯টায় প্রচার হবে নাটকটি। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন নাজমুল রনি। অভিনয় করেছেন শামীম হাসান সরকার, তাসনুভা তিশা প্রমুখ। প্রিয় মানুষের সঙ্গে হতে পারে মতবিরোধ, চলতে পারে কথা কাটাকাটি, মান-অভিমনা পর্ব। প্রতিটি বিষয় আলাদা দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখা এবং নিজ মত সত্যি বলে প্রমাণ করতে চাওয়া দুই তরুণ-তরুণীকে নিয়ে গড়ে উঠেছে এ নাটকের কাহিনী। এছাড়া আজ দেশ টিভিতে মিউজিক্যাল লাইভ অনুষ্ঠানে গাইবেন কণ্ঠশিল্পী কোনাল। রাত ১০টা থেকে সরাসরি অনুষ্ঠানটি সম্প্রচার করা হবে। এতে কোনাল গাইবেন ভক্ত-শ্রোতার প্রিয় কালজয়ী এবং নতুন নতুন বেশ কিছু গান। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন আলমগীর হোসেন। এসএ/    

বিটিভিতে ‘ইত্যাদি’ আজ

প্রতি বছরের মতো এবারও পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত হবে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। হানিফ সংকেতের পরিচালনা ও উপস্থাপনায় আজ রাত ১০টা ২০ মিনিটে এটি প্রচার হবে। অনুষ্ঠানটি সম্প্রতি ধারণ করা হয়েছে মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে। বরাবরের মতো এবারও ইত্যাদি শুরু করা হয়েছে ‘ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ’ গানটি দিয়ে। এবারের ঈদ ইত্যাদিতে একটি দেশাত্মবোধক গান গেয়েছেন নন্দিত শিল্পী অ্যান্ড্রু কিশোর, কুমার বিশ্বজিৎ ও শফি মণ্ডল। এছাড়া আরো থাকছে নানা আয়োজন। বাংলাদেশে দীর্ঘসময় ধরে দর্শক জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’।  যাঁর মেধা মননে তৈরি হয় এই অনবদ্য অনুষ্ঠান তাঁর নাম হানিফ সংকেত। তিনি ‘ইত্যাদি’ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আসলে আমরা সময়কে ধরে দর্শকদের কথা চিন্তা করে অনুষ্ঠান নির্মাণ করি। মূলত ইত্যাদি নির্মাণে বেশি সময় যায় গান রেকডিং এবং মহড়ায়। আজকালের বিভিন্ন গ্র্যান্ড ফিনালে কিংবা অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের মতো একই কথায়, একই সুরে রেকর্ড করা গান আর পূর্ব নির্ধারিত নাচ দিয়ে চালিয়ে দিলে প্রতি ৭ দিনে একটি করে ইত্যাদি করা যেত। তাছাড়া এটি কোনো দৌড়-ঝাঁপ জাতীয় খেলাধুলা বা গাছে ওঠানামার অনুষ্ঠানও নয়। ইত্যাদির প্রতিটি বিষয়ই ভাবতে হয়। আর এতটা ভাবনা-চিন্তা করা হয় বলেই ইত্যাদির প্রতিটি বিষয়ই দর্শকদের ভাবতে শেখায়। মানুষের মাঝে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি পায়।’ দীর্ঘদিনের জনপ্রিয়তা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘বিনোদনের কোনো ভাগ নেই। যেমন ইত্যাদিতে সব বয়সের, সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য বিনোদন থাকে। ইত্যাদিতে গ্রামের মানুষদের বিনোদন যেমন আছে, শহরের মানুষদের জন্যও বিনোদন রয়েছে।’ এসএ/  

একুশে টেলিভিশনে ঈদের ধারাবাহিক

ঈদে ছোট পর্দায় থাকছে নানান আয়োজন। বিভিন্ন টিভি চ্যানেল দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে নানান ভাবে সাজিয়েছে তাদের অনুষ্ঠানমালা। সেই ধারাবাহিকতায় বসে নেই একুশে টেলিভিশনও। ঈদকে আরও রঙিন করতে এবার একুশের অনুষ্ঠানমালায় এসেছে বৈচিত্র। এই ঈদে ইটিভিতে দেখা যাবে বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক নাটক। এর মধ্যে রয়েছে- নো অজুহাত : ঈদের দিন থেকে ৭ দিন দেখা যাবে নাটকটি। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিট প্রচার হবে এটি। ‘নো অজুহাত’ রচনা ও পরিচালনা করেছেন আদিবাসী মিজান। এতে অভিনয় করেছেন- জাহিদ হাসান, সাজু খাদেম, জামিল, নাবিলা, রুনা খান, মনিরা মিঠু। মিস্টার রোমিও : নাটকটি ঈদের দিন থেকে টানা ৭ দিন দেখা যাবে। এটি প্রচারিত হবে রাত ৯টা ২০ মিনিটে। ‘মিস্টার রোমিও’ নাটকটি রচনা করেছেন গোলাম সারওয়ার অনিক। এটি পরিচালনা করেছেন বি ইউ শুভ। এতে অভিনয় করেছেন- অপূর্ব, জাকিয়া বারী মম, জনি, মিষ্টি জান্নাত। কোট পরা ভদ্রলোক : ঈদের দিন থেকে টানা ৭ দিন দেখা যাবে ‘কোট পরা ভদ্রলোক’ নাটকটি। এটি রাত ১০টায় প্রচার করা হবে। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন সাজিন আহমেদ বাবু। অভিনয় করেছেন- মোশাররফ করিম, ইরেশ যাকের, তমা মির্জা, রোবেনা রেজা জুঁই। এসএ/  

চঞ্চল চৌধুরীর জন্মদিন আজ

জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। আজ তার জন্মদিন। ১৯৭৪ সালের ১ জুন জন্মগ্রহণ করেন এ অভিনেতা। একুশে টেলিভিশনের পক্ষ থেকে প্রিয় তারকার জন্মদিনে অনেক অনেক শুভেচ্ছা। চঞ্চল চৌধুরী মঞ্চ, টেলিভিশন, বড় পর্দা সব মাধ্যমেই নিজের অভিনয় দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, চঞ্চল তার কণ্ঠে গান তুলেও শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছেন। অভিনেতা পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার কামারহাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। সেখানেই বেড়ে উঠেন তিনি। রাজবাড়ি সরকারি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় ভর্তি হন। ছোটবেলা থেকেই তার গানবাজনা, আবৃত্তি আর নাটকের প্রতি টান ছিল। পরে মঞ্চনাটকের প্রতি আগ্রহ তৈরি হয়। ১৯৯৬ সালে মামুনুর রশীদের আরণ্যক নাট্যদলের সঙ্গে যুক্ত হন চঞ্চল। এর মাধ্যমে অভিনয় জীবনের শুরু। তার অভিনীত প্রথম মঞ্চনাটক আরণ্যক নাট্যদলের ‘কালো দৈত্য’। পরবর্তীতে এই নাট্যদলের ‘সংক্রান্তি’, ‘রাঢ়াঙ’, ‘শত্রুগণ’সহ অনেক নাটকে কাজ করেন। ২০০০ সালে ফরিদুর রহমান পরিচালিত ‘গ্রাস’ নাটকের মাধ্যমে টেলিভিশন নাটকে পা রাখেন তিনি। অল্প সময়ের মধ্যে দক্ষ অভিনেতা হিসেবে সুনাম কুড়ান তিনি। মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর ‘তাল পাতার সেপাই’ নাটক দিয়ে দর্শকের কাছে পরিচিত হয়ে ওঠেন চঞ্চল। ২০০৬ সালে তৌকির আহমেদ পরিচালিত ‘রূপকথার গল্প’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে চঞ্চলের। ২০০৯ সালে গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘মনপুরা’ সিনেমায় সোনাই চরিত্রে অভিনয় করেন। এই সিনেমায় অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি। পরের বছর গৌতম ঘোষ পরিচালিত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার ‘মনের মানুষ’ সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসা কুড়ান তিনি। ২০১৬ সালে ‘আয়নাবাজি’ সিনেমায় শাফায়েত করিম আয়না চরিত্রে অভিনয়ে করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘরে তোলেন চঞ্চল। এ অভিনেতার অন্যতম সিনেমাগুলোর মধ্যে ‘টেলিভিশন’ ও ‘দেবী’ অন্যতম। সর্ব শেষ হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ‘দেবী’তে অভিনয় করে বেশ সুনাম অর্জন করেন। এতে মিসির আলি চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। তবে সিনেমার পাশাপাশি ছোটপর্দায় দারুণ জনপ্রিয় তিনি। অসংখ্য জনপ্রিয় নাটকে অভিনয় করে চঞ্চল নিজের দখলে নিয়েছেন একটি বিশেষ শ্রেণীর দর্শককে। যারা প্রতিনিয়ত অভিনেতার নতুন নতুন নাটকের অপেক্ষায় থাকেন। এদিকে জন্মদিনে চঞ্চল চৌধুরীকে তার ভক্ত ও বন্ধুমহল শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চঞ্চল চৌধুরীর কাছের বন্ধু অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি। তিনি তার নিজের ফেসবুকে দুটি ছবি প্রকাশ করেছেন। যেখানে কেক কেটে চঞ্চলের জন্মদিন উদযাপন করেছেন খুশি ও তার দুই ছেলে। সেখানে অভিনেত্রী লিখেছেন- ‘শুভ জন্মদিন বন্ধু।’ বন্ধু মানে বিশ্ববেহায়া, নির্ভরতার গভীর ছায়া, তোর দুঃসময়ে আমার সুর্যটা তোকে দিয়ে, তোর আঁধারটা বদলে নেয়া! অন্ধকারটাও বুকে নেয়া। বন্ধু মানে ত্যাগের ছায়া, আমার আয়ুটা তোকে দিয়ে, তোর অকাল দুঃসহতা আমার জীবনে মেনে নেয়া। ভালোবাসি তোকে বন্ধু।’ এসএ/  

ঈদের নাটকে মৌ-তারিক আনাম খান

আসছে ঈদের জন্য একটি একক নাটকে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান ও সাদিয়া ইসলাম মৌ। দূরত্ব আর ভালোবাসার গল্প নিয়ে নির্মিত এ নাটকের নাম ‘ভ্রান্তি’। নাটকের গল্পে দেখা যাবে- রঞ্জু আর রায়ার দীর্ঘদিন হলো কথাবার্তা নেই। প্রায় মাস ছয়েক হয়ে গেছে। দু’জন দু’জনের মতো থাকছে। দুটি রুমে, দুজন মানুষ। রাত গভীর হলে দু’জন দু’জনার নিঃশ্বাস হয়তো শুনতে পায়। ব্যস, ওইটুকুই। মাঝে মধ্যে প্রিয় কিছু গান ভেসে আসে। একজন বাজালে অন্যজন বন্ধ রাখে। এভাবেই চলে সহাবস্থান। বাড়িটিতে পিনপতন নিঃশব্দতা বিরাজ করে। মাসে একবার পেপার বিল, মেইনটেন্যান্স চার্জ আর ডিশ বিল নিয়ে যায় কেয়ারটেকার। সেও জানে এই ফ্ল্যাটে কোনো কথা হয় না। চুপচাপ সারতে হয় জরুরি কাজ কারবার। দু’জন কথা বলা বন্ধ করেছেন দুটি কারণে। রঞ্জু জানে রায়া অন্য এক যুবকের প্রতি আসক্ত। আর রায়া জানে রঞ্জু এক তরুণীর প্রতি আসক্ত। বিয়ের আগে তারা পরস্পরকে কথা দিয়েছিল জীবনে কোনোদিন তারা একে অন্যকে সন্দেহ করবে না। এখন সন্দেহের মধ্যে বসবাস। কিন্তু কেউ কাউকে কিছু বলতে পারছে না। এভাবে দুর্বিষহ জীবন তাদের। একদিন দু’জনের প্রেমিক আর প্রেমিকা আবিস্কার করে রায়া আর রঞ্জু এখনও দু’জন দু’জনকে ভালোবাসে। এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প। এজাজ মুন্নার রচনায় নাটকটি প্রযোজনা করেছেন মাহবুবা ফেরদৌস। নাটকটি প্রচার হবে ঈদের দিন রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে বিটিভিতে। এসএ/

আজ হুমায়ুন ফরিদীর জন্মদিন

প্রয়াত গুণী শিল্পী, শক্তিমান অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদীর আজ জন্মদিন। ১৯৫২ সালের আজকের এই  দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। প্রখ্যাত এই অভিনেতা সকল ক্ষেত্রে অভাবনীয় প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে গেছেন। বাংলাদেশের নাটক ও সিনেমায় এক উজ্জলতম নক্ষত্র তিনি। হুমায়ুন ফরিদীর ক্যারিয়ার শুরু মঞ্চ থেকে। এরপর ছোটপর্দা, তারপর বড়পর্দা। সব জায়গায় তিনি ছড়িয়েছেন দ্যুতি। তিনি তার নান্দনিক অভিনয় নৈপুণ্যে হয়ে ওঠেন গুণীদের একজন। তিনি তার অভিনয়ে বরাবরই প্রবেশ করতেন গভীরে। তাইতো কোটি মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। এক কথায় অসাধারণ অভিনয়শিল্পী হৃমায়ুন ফরিদী। হুমায়ুন ফরীদির অভিনয়ের শুরুটা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আল-বেরুনী হলে থাকতেন এ অভিনেতা। আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় নাট্য প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নাট্যচার্য সেলিম আল দীনের নজরে পড়েন তিনি। এরপর যুক্ত হন ঢাকা থিয়েটারের নাট্যচর্চার সঙ্গে। ঢাকা থিয়েটারের হয়ে মঞ্চে অভিনয় করেন কিত্তনখোলা, মুন্তাসির ফ্যান্টাসি, কেরামত মঙ্গল, ধূর্ত উই প্রভৃতি নাটকে। কেরামত মঙ্গল নাটকে কেরামত চরিত্রে হুমায়ুন ফরীদির অভিনয় এখনও আলোচিত হয় ঢাকার মঞ্চে। টিভি নাটকে হুমায়ুন ফরীদি আলোচনায় আসেন শহিদুল্লাহ কায়সারের উপন্যাস অবলম্বনে আবদুল্লাহ আল মামুন নির্মিত ‘সংশপ্তক’ ধারাবাহিক নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। নাটকটিতে কানকাটা রমজান চরিত্রে অভিনয় করে দারুণ প্রশংসা অর্জন করেন হুমায়ুন ফরীদি। এরপর দীর্ঘ সময় তিনি ছোটপর্দায় সাফল্যের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটক “শকুন্তলা”, “ফণীমনসা”, “কীত্তনখোলা”, “মুন্তাসির ফ্যান্টাসি”, “কেরামত মঙ্গল” প্রভৃতি। ১৯৯০ সালে নিজের পরিচালনায় “ভূত” দিয়ে শেষ হয় ফরীদির ঢাকা থিয়েটারের জীবন। আতিকুল হক চৌধুরীর প্রযোজনায় “নিখোঁজ সংবাদ” ফরীদির অভিনীত প্রথম টিভি নাটক। তাঁর অন্য নাটকগুলোর মধ্যে ছিলো “সংশপ্তক’’, “হঠাৎ একদিন”, “একটি লাল শাড়ি”, “নীল নকশার সন্ধানে”, “দূরবীন দিয়ে দেখুন”, “বকুলপুর কতদূর”, “মহুয়ার মন”, “সাত আসমানের সিঁড়ি”, “একদিন হঠাৎ”, “কাছের মানুষ”, “কোথাও কেউ নেই”, “মোহনা”, “ভবেরহাট”, “জহুরা”, “আবহাওয়ার পূর্বাভাস” ইত্যাদি। ফরীদির প্রথম সিনেমায় অভিনয় শুরু হয় তানভীর মোকাম্মেলের “হুলিয়া”-র মধ্য দিয়ে। এরপর, তাঁর অভিনীত সিনেমার মধ্যে রয়েছে “সন্ত্রাস”, “বীরপুরুষ”, “দিনমজুর”, “লড়াকু”, “দহন”, “বিশ্বপ্রেমিক”, “কন্যাদান”, “আঞ্জুমান”, “পালাবি কোথায়”, “একাত্তরের যীশু”, “ব্যাচেলর”, “জয়যাত্রা”, “শ্যামল ছায়া” প্রমুখ। ২০১২ সালে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। এসএ/  

ঈদের নাটক দিয়ে ফিরলেন সারিকা

মডেল-অভিনেত্রী সারিকা। দীর্ঘদিন তাকে পর্দায় দেখতে পাচ্ছে না দর্শক। অনেকটা আড়ালেই চলে গেছেন তিনি। তবে সারিকা ভক্তদের জন্য সুখবর, আগামী ঈদে ফিরছেন তিনি। সম্প্রতি ঈদের জন্য নির্মিত একটি নাটকে অভিনয় করলেন সারিক। নাটকের নাম ‘মিস মাশরাফি’। সবুজ হাওলাদারের গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন তানভীর। নাটকে সারিকার বিপরীতে অভিনয় করেছেন মিশু সাব্বির। দীর্ঘ দিন পর ফিরে আসা প্রসঙ্গে সারিকা বলেন, ‘এ মুহূর্তে আমি কিছুটা অসুস্থার মধ্য দিয়েই শুটিং করেছি। যেহেতু কথা দিয়েছি এ নাটকটিতে কাজ করব। তাই কথা রেখেই কাজটি ভালোভাবে শেষ করেছি। আমার মনে হয় দর্শক নাটকটি বেশ আগ্রহ নিয়েই উপভোগ করবেন।’ নির্মাতা জানিয়েছেন আগামী ঈদে একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে। এ নাটকটি ছাড়াও তুহিন হোসেনের পরিচালনায় ‘চুল তার কবেকার’ নামে একটি টেলিফিল্মেও অভিনয় করেছেন সারিকা। এতেও তার বিপরীতে আছেন মিশু সাব্বির। টেলিফিল্মটি আগামী ঈদে চ্যানেল আইয়ে প্রচার হবে। এছাড়াও ঈদ উপলক্ষে আরও কয়েকটি নাটকে অভিনয় করবেন সারিকা। এসএ/  

ঈদে মোশাররফ-তিশার ‘তালমিছরি, না হাওয়াই মিঠাই’

ঈদের নাটক মানেই মোশাররফ করিম থাকতেই হবে। কারণ দর্শক তার নাটকগুলোতে ভিন্ন এক বিনোদন খুঁজে পান। আর তাই দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রতিবছরই নির্মাতা সাগর জাহান মোশাররফ করিমকে নিয়ে দারুণ সব নাটক নির্মান করে থাকেন। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ঈদে নতুন সিরিজ নিয়ে আসছেন এই নির্মাতা ও অভিনেতা। এর আগে সাগর জাহানের বেশ কিছু সিরিজে অভিনয় করে বেশ আলোচিত হয়েছেন অভিনেতা মোশাররফ করিম। তার মধ্যে ‘মাহিন’ সিরিজটি দর্শকদের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলে। আসছে ঈদের জন্য এই সিরিজ আর করেননি নির্মাতা। এই সিরিজের পরিবর্তে নির্মাণ হয়েছে ‘তালমিছরি, না হাওয়াই মিঠাই’ শিরোনামের নতুন একটি সিরিজ। এটিও বরাবরের মত থাকছে সাত পর্বে। এতে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা, আরফান আহমেদ ও প্রাণ রায়। নাটকটির শুটিং হয়েছে কক্সবাজারে। এই নাটকে মোশাররফ করিম ও আরফান আহমেদকে রাজশাহীর আঞ্চলিক ভাষায় সংলাপ বলতে শোনা যাবে। নাটকটি প্রসঙ্গে আরফান আহমেদ বলেন, ‘কাজটি করে অনেক আনন্দ পেয়েছি। ইউনিটের সবাই নাটকটি নিয়ে ভালো কিছু প্রত্যাশা করছেন। আমার ধারণা ‘তাল‌মিছ‌রি না হাওয়াই মিঠাই’ দর্শক ভালোভাবে গ্রহণ করবেন।’ অপরদিকে নির্মাতা সাগর জাহান বলেন, ‘প্রতি বছরই ঈদে আমার বিশেষ ধারাবাহিক নাটক থাকে। এবারও এর ব্যতিক্রম ঘটছে না। এই নাটকটিতে দর্শক নিরমল বিনোদন পাবেন। মোশাররফ ভাইকে প্রথমবার রাজশাহীর আঞ্চলিক ভাষায় সংলাপ বলতে শুনতে পাবেন। আশা করছি আমার অন্য কাজগুলোর মতো এই কাজটিও দর্শক বেশ ভালোভাবেই গ্রহণ করবেন।’ এসএ/

আবারও আইসিইউতে এ টি এম শামসুজ্জামান

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামানকে আবারও হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়েছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, হঠাৎ করে অভিনেতার শ্বাসকষ্ট বাড়ায় গতকাল দুপুরে আবারও আইসিইউতে নেওয়া হয়। যদিও আজ এ অভিনেতার বাসায় ফেরার কথা ছিল। কিন্তু চিকিৎসকের সিদ্ধান্তে তাকে নেওয়া হয়েছে আইসিইউতে। গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন তার ছোট ভাই সালেহ জামান সেলিম। এ টি এম শামসুজ্জামানের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা নিয়ে হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ ডা. মো. মতিউল ইসলাম বলেন, ‘গত চার দিন তিনি কেবিনে বেশ ভালোই ছিলেন। তার শ্বাসকষ্ট বাড়ায় আবারও আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। তবে আশার কথা হলো, তিনি বিপদমুক্ত। একটু সুস্থ হলেই তাকে কেবিনে দেওয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ টি এম শামসুজ্জামানের বাসায় ফেরার বিষয়ে সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। যদি বাসায় ফেরেনও চিকিৎসকের দেখাশোনায় থাকবেন তিনি। বার্ধক্যজনিত কারণে তার শরীরে অনেক সমস্যা দেখা দিয়েছে। যে জন্য স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আরও সময় লাগবে। প্রসঙ্গত, গত ২৬ এপ্রিল রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে এ টি এম শামুসজ্জামানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চার দিন আগে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। এসএ/  

‘অভাগিনী মা’ চম্পা

চিত্রনায়িকা চম্পা। সিনেমায় এখন তাকে খুব একটা দেখা যায় না। তবে মাঝে মধ্যে ছোট পর্দায় নাটকে অভিনয় করেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় এবার বিশেষ একটি টেলিফিল্মে দেখা যাবে তাকে। নাম ‘অভাগিনী মা’। টেলিফিল্মটি নির্মাণ করেছেন গোলাম হাবিব লিটু। এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা চম্পা। তাকে একজন দুঃখী মায়ের চরিত্রে দেখা যাবে। টেলিফিল্মটির গল্পে দেখা যাবে- ‘রিনি ও নীল দুই বন্ধু। তাদের বসবাস শহরে। মর্জিনা (চম্পা) নামের এক মহিলাকে খুঁজছেন তারা। এজন্য শহর থেকে প্রথমবার তাদের গ্রামে যাওয়া। কিন্তু কেন এই মহিলাকে খুঁজছে তারা? রিনি জানলেও নীল এর কিছুই জানেন না। নীলের কোন প্রশ্নের জবাবও দেয় না রিনি। সে শুধু নীলকে বলেন, সে যা যা বলতে এবং করতে বলে যেন সেটাই করে। অনেক খুঁজে অবশেষে মর্জিনার সন্ধান পায় তারা। এর পর কী হবে তা জানা যাবে টেলিফিল্মটি দেখলেই। ‘অভাগিনী মা’ টেলিফিল্মটিতে অন্যান্য চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া, জীবন রায়, বাবু, সোহেলী, বৃষ্টি প্রমুখ। আগামী শুক্রবার দুপুর ২টা ৪৫ মিনিটে চ্যানেল আইতে দেখা যাবে ‘অভাগিনী মা’। এসএ/  

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি