ঢাকা, ২০১৯-০৫-২১ ২২:৩৭:৫৮, মঙ্গলবার

ধম্মপদ-৫

ধম্মপদ-৫

সব মলের নিকৃষ্ট মল অবিদ্যা। হে ধ্যানী! এই মল বর্জন করে নির্মল হও। [মলবগ্‌গো: ২৪৩] সূত্র: কোয়ান্টাম কণিকা একে//
ধম্মপদ

ধম্মপদ অনন্ত প্রশান্তির পথ বুদ্ধং শরণং গচ্ছাদি ধম্মং শরণং গচ্ছাদি সঙ্ঘং শরণং গচ্ছাদি বাংলার ঘরে ঘরে একদা উচ্চারিত হতো এই বুদ্ধবাণী। মহামতি বুদ্ধ জীবনের সত্যকে খুব সহজভাবে বর্ণনা করেছেন। জীবনে দুঃখ আছে। দুঃখের কারণ আছে। দুঃখের কারণ আসক্তি। আসক্তির কারণ অবিদ্যা। অবিদ্যা দূর হবে শীল  অর্থাৎ সদাচরণ ও প্রজ্ঞা দ্বারা। সৎমন প্রস্ফুটিত হবে সৎকর্মে। তখনই আসক্তির বৃত্ত ভেঙে যাবে। দুঃখের বিনাশ ঘটবে। তৃপ্ত জীবন লীন হবে অনন্ত প্রশান্তিলোকে। [অনন্ত প্রশান্তিলোকে পৌঁছার পথ ত্রিপিটকের ধম্মপদ। প্রখ্যাত দার্শনিক এস রাধাকৃষ্ণন এর ইংরেজি অনুবাদ The Dhammapada থেকে কিছু হাথার সরল বাংলা মর্মার্থ হচ্ছে ধম্মপদ কণিকা] ১) চিন্তা বা অভিপ্রায়ের প্রতিফলন ঘটে স্বভাব বা প্রকৃতিতে। যদি কেউ মন্দ অভিপ্রায় নিয়ে কথা বলে বা কাজ করে দুঃখ তাকে অনুগমন করে। আর কেউ যদি সুচিন্তা নিয়ে কথা বলে বা কাজ করে সুখ তাকে ছায়ার মতো অনুসরণ করে। [যমকবগ্‌গো: ১-২] সূত্র: কোয়ান্টাম কণিকা একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি